Tuesday, 11 December 2018

মমতা টুইট করলেন ," এটা গণতন্ত্রের জয় ", তাহলে কি এবার, মিশন ২০১৯ ?

ওয়েব ডেস্ক ১১ই ডিসেম্বর ২০১৮ : বিখ্যাত আইনজীবী রাম জেঠ মালানিই  ছিলেন প্রথম ব্যক্তি যিনি মনে প্রাণে বিশ্বাস করতেন এবং এখনো করেন , প্রধানমন্ত্রিত্বের জন্য মমতাই যোগ্য ।পাঁচ রাজ্যে বিজেপির ভরাডুবির পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইট করলেন ।‘‌পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ফলাফলের ট্রেন্ডই বলে দিচ্ছে সেমিফাইনালেই বিজেপি কোথাও নেই। ২০১৯–এর লোকসভা নির্বাচনের আগে এটাই গণতন্ত্রের জয়। মানুষই ম্যান অব দ্য ম্যাচ গণতন্ত্রে। দেশবাসীর জয়।


তিন রাজ্যের সম্ভাব্য জয়ীদের আমার শুভেচ্ছা।’‌ টুইট করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। কেন্দ্রে জোট সরকার গড়ার সূত্রটা তিনিই বেঁধে দিয়েছেন। তাঁরই নেতৃত্বে একমঞ্চে এসেছে ২১টি রাজনৈতিক দল। এই ঐতিহাসিক জোটের যে মধ্যমণি তিনিই সেটা সোমবারই রাজধানী দিল্লির বৈঠকে স্পষ্ট করে দিয়েছিলেন অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। কর্ণাটকে জোট সরকার গড়ার কৌশলটা তৃণমূল নেত্রীই বাতলে দিয়েছিলেন কংগ্রেসকে। সেই সূত্র মেনেই বিজেপিকে বড় ধাক্কা দিয়েছিল কংগ্রেস। এবার পাঁচ রাজ্যেও সেই থিওরি মেনেও যে কাজ হয়েছে তা অনস্বীকার্য। রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে বিজেপির সঙ্গে। বলা ভাল বিজেপি অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছে কংগ্রেসের থেকে। এটাকে দেশবাসীর জয় বলেই টুইট করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। তিনিই প্রথম বলেছিলেন ২০১৯-‌এ বিজেপি ফিনিস। রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ এবং ছত্তিশগড়ের ক্রমশ প্রকাশ্য ফলাফল সেদিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছে। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচন বিজেপির পক্ষে যে সুখকর হবেনা , সেটা এই ট্রেন্ডেই বোঝা যাচ্ছে । এখনো বেশ কয়েকটা মাস বাকি আছে ,এবার বিজেপি কোন কোন পন্থা নেয় এখন সেটাই দেখার  ।তবে মানুষ জানে তাদের দরকার রেশন , ভাষণ নয় ।

No comments:

Post a Comment

loading...