Wednesday, 12 December 2018

ইতিহাসের স্নাতক শক্তিকান্ত দাসকে দিয়ে কি করে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক চলবে ? বলতে পারবে একমাত্র বিজেপি সরকার

ওয়েব ডেস্ক ১২ ই ডিসেম্বর ২০১৮ : পশ্চিমবঙ্গের বামফ্রন্ট জমানায় দেখা গিয়েছিল , যে ব্যক্তি যেই কাজে পারদর্শী তাকে সেই কাজ না দিয়ে , অন্য দফতরের কাজ দেওয়া হত । কোনো মানুষের যদি অভিলাষ থাকতো তার কোনো পছন্দের কাজ করার তাকে সেই কাজ থেকে বিরত রেখে অন্য কাজ দেওয়া হত , এই ভাবেই ব্যর্থতাটাকেই অভ্যেস করিয়েছে ।



ঠিক সে ভাবেই কি রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নরের পদে বসছেন ১৯৮০ ব্যাচের আইএএস শক্তিকান্ত দাস। উল্লেখ্য, সোমবার রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর পদ থেকে ইস্তফা দেন উর্জিত প্যাটেল। ২৪ ঘণ্টা না কাটতেই ওই পদে কেন্দ্রের প্রথম সারির আমলা শক্তিকান্তকে ঘোষণা করা হয়। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের মতো আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাথায় একজন আমলাকে বসানোয় রীতিমতো প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠছে, যেখানে পূর্বসূরী গভর্নরদের অর্থনীতির পাণ্ডিত্য নিয়ে প্রশ্ন ওঠে না, সেই জায়গা ইতিহাসের স্নাতক আমলা কীভাবে স্বশাসিত প্রতিষ্ঠানকে চালাবেন! বিতর্ক আরও দাঁনা বাঁধছে, কারণ এই মুহূর্তে নানা আর্থিক ইস্যু নিয়ে  জর্জরিত দেশের শীর্ষ ব্যাঙ্ক। সমস্যা সমাধানে অপারগ হয়েই ইস্তফা উর্জিত প্যাটেলের বলে মনে করা হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে নোটবন্দির মতো সমস্যার অভিজ্ঞতা নিয়ে কতটা মোকাবিলা করতে সক্ষম হবেন শক্তিকান্ত, তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। বলে রাখা প্রয়োজন, পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের অন্যতম সদস্য ছিলেন শক্তিকান্ত। বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত ইতিহাসের স্নাতক দিয়ে কিভাবে বিজেপি সরকার রিজার্ভ ব্যাঙ্কের মতো স্বশাসিত প্রতিষ্টান চালাবে সেটা তারাই ভালো বলতে পারবে । তবে ইতিহাসের স্নাতক দিয়ে নিজেদের কার্যসিদ্ধি করিয়ে নেবে কি না এ বিষয়ে তীক্ষ্ণ নজর রাখা উচিত ।

No comments:

Post a Comment

loading...