Monday, 17 December 2018

আবার যোগীর রাজ্যে শ্লীলতাহানি তরুণীকে , এবার ইভটিজিংএর প্রতিবাদ করায়

ওয়েব ডেস্ক ১৭ ই ডিসেম্বর ২০১৮ :কথায় আছে সহ্যের সীমারেখা আছে । যোগী আদিত্যনাথ যতই কড়া কড়া মম্তব্বো করে হাততালি কুড়োননা কেন আদতে ক্রমাগত বেড়ে যাওয়া ধর্ষণ তিনি কি আটকাতে পাচ্ছেন ? উত্তরটা তিনি ভালো ভাবেই জানেন ,প্রশ্নটা করে হয়তো কেউই তাকে লজ্জা দিতে চাইবেন না । সব মহিলারা তো আর সমান হয়না , এই প্রবাদকে শিলমোহর দিয়ে ইভটিজিংয়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিলেন এক যুবতী। তাই তাঁকে শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ উঠল উত্তরপ্রদেশের মুজফ্ফরনগরে। ঘটনাটি ঘটে মিচরৌলি গ্রামের ঝিনঝিনায়। ওই যুবতীর অভিযোগ, এলাকার কয়েকজন তাঁকে উদ্দেশ্য করে অশ্লীল মন্তব্য করে।তখন তিনি রুখে দাঁ‌ড়িয়ে প্রতিবাদ করেন।

তারপরই ১০ দুষ্কৃতী তাঁর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। মারধর ও শ্লীলতাহানি করে। এই ঘটনায় ফের যোগীর রাজ্যে মহিলারা কতটা নিরাপদ তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। নির্যাতিতা যুবতীর দাবি, এলাকার মধ্যে হওয়ায় তাঁর পরিজনরা দ্রুত খবর পেয়ে যান।তাঁরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। বাঁচানোর চেষ্টা করেন। ওই যুবতীর পরিজনরাও আক্রান্ত হন। তাঁদের ধারালো অস্ত্র দিয়ে আক্রমণ করা হয়।
পুলিস সূত্রে খবর, উত্তরপ্রদেশের সামলি জেলার ঘটনায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। যুবতীর বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। তার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। যুবতীর পরিবারের সদস্যরাও আক্রান্ত হয়েছে। অন্যদিকে সাতমাস আগে মুজফ্ফরনগরেই ১৫ বছরের দলিত কিশোরীকে গণধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ উঠেছিল। মৃত কিশোরীর বাবার অভিযোগ ছিল, গ্রামের জঙ্গলে কুলদীপ ও মালতি নামের দু’‌জন তাঁর মেয়েকে টেনে নিয়ে গিয়েছিল। জঙ্গলের মধ্যেই তাঁর মেয়েকে গণধর্ষণ করা হয়।যোগী আসার পর দিনকে দিন অবস্থার অবনতি যে হচ্ছে উত্তরপ্রদেশে , সেটা সবারই জানা যোগী আদিত্যনাথ আসার পর মেয়েদের ওপর নির্যাতন্যে বেড়ে গেছে , সেটা বার বার সমীক্ষায় ধরা ।পড়েছে , কিন্তু প্রশাসনের নির্বিকার  ।এক হতে পারে তারা সরকার চালাতে অভিজ্ঞ নয় , দ্বিতীয়ত তাদের উন্নতির করার কোনো ইচ্ছে নেই ।

No comments:

Post a Comment

loading...