Saturday, 15 December 2018

ভুল থেকে শিক্ষা না নিয়ে মূর্তি বানানোর কাজেই মন দিলেন যোগী আদিত্যনাথ

ওয়েব ডেস্ক ১৫ই ডিসেম্বর ২০১৮ :বাংলার থেকে আলিমুদ্দিনের কমিউনিস্ট যখন বিদায় নিয়েছিল তার আগে, যতই সিপিএমের ওপর ভোট বিপর্যয় নেমে এসেছিল তারা নমনীয়তা দেখাতে অনড় ছিল।যতই তাদের ভুলটা ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছিলোনা  কেন  , ততই তারা তাদের জেদি মনোভাবের নিদর্শন রেখেছিল । তাদের মনোভাব ছিল "আমরা এই ভাবেই চলবো , আমাদের সিস্টেমেই জনগণকে আসতে হবে " , মানে সমস্যার মধ্যে দিন কাটাতে হবে মানুষকে ।


পরিণতিটা কি হল ?সেটা সবারই জানা  । এবার পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা ভোটে হারার পর অনেকটা সেরকমই মনোভাব নিতে শুরু করেছে বিজেপি। উত্তরপ্রদেশে যোগী আদিত্যনাথ পরিচালিত বিজেপি সরকার পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনে বিজেপির পরাজয়ের পর ফের মূর্তি তৈরিতেই মন দেবার সিদ্ধান্ত নিলো। উত্তরপ্রদেশ সরকার সূত্রে জানা গেছে, রাজ্যে চারটি বড় মূর্তি স্থাপন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই চারটি মূর্তির মধ্যে একটি হবে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর এবং একটি স্বামী বিবেকানন্দের।লখনউতে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর একটি ২৫ ফুট মূর্তি বানানো হবে এবং সেটি স্থানীয় লোকভবনে বসানো বলে সরকারের তরফে জানানো হয়েছে। স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তি বসানো হবে রাজভবনে।এছাড়াও সাড়ে ১২ ফুট মাপের একটি মূর্তি তৈরি করা হবে মহন্ত অবৈদ্যনাথ-এর। অন্যটি মহন্ত দিগ্বিজয়নাথের। এই দুটি মূর্তিই বসবে গোরক্ষপুরে। এই সব মূর্তিগুলি বসানোর বিষয়ে সবুজ সঙ্কেত দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ স্বয়ং বলে সরকারি এক মুখপাত্র জানিয়েছেন।অন্যদিকে রাজ্যে চারটি মূর্তি বসানোর সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করেছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব। মুখ্যমন্ত্রী যদি মূর্তি না বানিয়ে উন্নয়ন এবং কাজ নিয়ে কথা বলতেন তাহলে তা রাজ্যের পক্ষে মঙ্গলের হত বলেও তিনি জানিয়েছেন। বিদ্যজনেদের একাংশের অভিমত , শুধু নিজেদের স্বার্থ চরিতার্থ  করার জন্য বাংলায় সিপিএম বহু  মেধাবী ছাত্র ছাত্রীদের জীবন নষ্ট করেছিল, তাদের একাডেমিক ক্যারিয়ার এমন একটা পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছিল যে তাদের অটো রিকশা , চালাতে বাধ্য কড়া হয় , আর অটোরিকশা চালানো মানেই সিপিএমের পার্টির মধ্যে ঢুকে যাওয়া  ।মনে হচ্ছে সেই রকম জেদি মনোভাব বিজেপিও দেখাচ্ছে ।  

No comments:

Post a Comment

loading...