Saturday, 26 January 2019

লিখিত একটা শব্দও ঠিক মত উচ্চারণ করতে পারলেননা মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস মন্ত্রী, হাসির খোরাক হলেন দর্শকদের কাছে

ওয়েব ডেস্ক ২৬শে জানুয়ারি ২০১৯:রাজনীতিতে শিক্ষিত লোকের সংখ্যা যে কমে গেছে এর কোনো দ্বিমত নেই । তবুও কেন রাজনৈতিক দলের তরফ থেকে এই সব অশিক্ষিত লোকেদের  মন্ত্রিত্বভার  দেওয়া হয়, সেটা একমাত্র দলের লোকেরাই বলতে পারবে , কিন্তু এতে দলের সুনামের থেকে দুর্নামই যে বেশি হয় সেটা বুঝেও বোঝেনা অনেক রাজনৈতিক দল , তবে এবার মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস হয়তো বুঝতে পারবে ।প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে দলকে প্রবল বিড়ম্বনায় ফেললেন মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রী ইমারতি দেবী।
শনিবার সকালে এক অনুষ্ঠানে পতাকা উত্তোলন করেন ইমারতি। তার পরেই আসে সেই ‘বিপদ’। ডায়াসে আসতে হয় লিখিত বক্তৃতা পাঠ করার জন্য। এখানেই আটকে যান মন্ত্রী।বক্তৃতা পাঠ করা শুরু করতেই হেঁচট খান মন্ত্রী। প্রতিটি শব্দ কেটে কেটে উচ্চারণ করতে গিয়েও ব্যর্থ হন তিনি। মাত্র কয়েকটি শব্দ বলার পরই তিনি বক্তব্য থামিয়ে ঘোষণা করেন, ‘এবার জেলাশাসক বক্তব্য পাঠ করবেন’। শুধুমাত্র কোনও ক্রমে গণতন্ত্র শব্দটা বোঝা যাচ্ছিল। এর পরই তিনি জেলা শাসককে এগিয়ে দেন। সেই ভিডিও এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।এদিকে, ওই ঘটনা নিয়ে সাফাই দিয়েছেন ইমারতি দেবী। সংবাদসংস্থাকে তিনি বলেন, দুদিন ধরে আমি অসুস্থ। চিকিত্সকদের জিজ্ঞাসা করুন। যাইহোক জেলা শাসক ঠিকঠাকই পড়ে দেবেন।মধ্যপ্রদেশে কমলনাথ মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ ইমারতি দেবী। নিজের কেন্দ্র থেকে ২০০৮ ও ২০১৩ সালে ২ বার নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০১৮ সাল ধরলে তিনবার বিধায়ক হলেন ইমারতি দেবী।গত ডিসেম্বর মাসে রাজ্য মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার সময়েই গোলমাল পাকিয়েছিলেন ইমারতি। সেবার কমলনাথ মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণ করে ইমরাতিকে মন্ত্রী করেন। রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল তাঁকে যখন শপথবাক্য পাঠ করাচ্ছিলেন তখনও বেশ কয়েকবার তিনি হোঁচট খান। এরকম ঘটনা যে ঘটে পারে আগে থেকে এর সতর্কতা নেওয়া ছিল বলেই মনে করেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস কর্মীরা । 

No comments:

Post a Comment

loading...