Wednesday, 2 January 2019

নাসিরুদ্দিন শাহের ভবিষৎবাণী সঠিক হল , যোগী চালু করলেন ‘‌গো শুল্ক’‌

ওয়েব ডেস্ক ২রা  জানুয়ারি ২০১৯: নাসিরুদ্দিন শাহ কি জোতিষী সাত্র নিয়ে চর্চা করেন ? যদি উত্তরটা "না " হয় তাহলে কি করে এরকম একটা ভবিষৎবাণী  করলেন এবং হুবহু সেটাও মিলিয়ে দিলেন ? এনিয়ে তর্ক চলতেই পারে ।তবে এটাই সত্যি মানুষের থেকে গরুর দামটাই এখন যোগীর কাছে বেশি ।প্রসঙ্গত মঙ্গলবার রাজ্যের বিধানসভায় রাস্তার গরুদের জন্য অস্থায়ী ‘‌গোবংশ আশ্রয়স্থল’‌ তৈরির অনুমোদন পাশ হল। এই আশ্রয়স্থলগুলি পৌরসভা ও পঞ্চায়েত এলাকায় গড়ে তোলা হবে বলে জানা গিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এই প্রকল্পকে স্বাগত জানিয়েছেন। এরই পাশাপাশি গরুদের রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ‘‌গো শুল্ক’‌ চালু করা হবে বলে জানা যাচ্ছে।


সরকারি সূত্রে জানা যাচ্ছে, অস্থায়ী এই গোশালাগুলি বিভিন্ন গ্রাম, পঞ্চায়েত, পৌরসভা ও পৌরনিগম এলাকায় তৈরি করা হবে। প্রত্যেকটি জেলার শহর ও গ্রামীণ এলাকায় ১০০০টি গরু থাকতে পারবে এরকম গোশালা তৈরি করা হবে। এর জন্য আবগারি, মাণ্ডি পরিষদ সহ অন্যান্য লাভজনক সংস্থায় ২ শতাংশ শুল্ক ধার্য করা হয়। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ জানান, পশুপালন দপ্তরের সাহায্য থাকলেও, গোশালাগুলিকে স্বতন্ত্র হতে হবে। রাস্তার গরুদের রক্ষা ও যত্নের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করতে গত সপ্তাহেই সরকারি আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। অবৈধ দখলে থাকা এলাকাগুলি খালি করে সেখানে গো–চারণভূমি তৈরি করারও নির্দেশ দেন তিনি।রাস্তার গবাদি পশুদের আরও ভাল আশ্রয়স্থল কীভাবে গড়ে তোলা যায় বা কীভাবে তাদের আরও যত্ন নেওয়া যায়, তার খসড়া তৈরির জন্য মুখ্য সচিব অনুপচন্দ্র পাণ্ডেকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সূত্রের খবর , যা হচ্ছে সেটা নমুনা মাত্র , আগামী দিনে আরও চাঞ্চল্যকর পদক্ষেপ আসছে ।

No comments:

Post a Comment

loading...