Wednesday, 23 January 2019

এবার ২৩ কোটি টাকার বিল পৌঁছলো মাসিক ১৭৮ ইউনিট খরচ করা ব্যক্তির হাতে, যোগীর আমলে এটাই কি উন্নতি ?

ওয়েব ডেস্ক ২৩শে জানুয়ারি ২০১৯: উত্তরপ্রদেশ এখন নৈরাজ্যে পরিণত হয়েছে ,গরুর মূল্যবোধ যেমন বেড়েছে তেমনি পাল্লা দিয়ে কমেছে মানুষের মূল্যবোধ।সাধারণ মানুষের জীবন ওষ্ঠাগত শুরু হয়েছিল যোগী মুখ্যমন্ত্রী পদে বসার পর থেকেই , এখন দিন কে দিন সেটা বাড়ছে বই কমছেনা।প্রসঙ্গত উত্তরপ্রদেশের কনৌজ জেলার এক ব্যক্তির যেখানে তাঁর বাড়ির বিদ্যুৎ সংযোগ ২ কিলোওয়াটসের, সেখানে বিল এসেছে ২৩ কোটি টাকার।
এই ২ কিলোওয়াটসেই রোজ বাড়ির সমস্ত বৈদ্যুতিন জিনিস চলে। খরচ হয় মাত্র ১৭৮ ইউনিট বিদ্যুৎ।আকাশ ছোঁয়া বিল দেখে মাথায় হাত পড়েছে কনৌজের আব্দুল বসিতের। সমস্যার সমাধানের জন্য স্থানীয় বৈদ্যুতিন স্তম্ভে গিয়ে দেখার চেষ্টা করছেন তিনি এত বিল আসার আসল কারণ কী। আব্দুল বসিতের বিল এসছে ২৩,৬৭,৭১,৫২৫ টাকার।বিল হাতে নিয়ে তিনি বলেন, ‘‌মনে হচ্ছে গোটা উত্তরপ্রদেশের বিদ্যুতের বিল আমার কাছে এসেছে। আমি সারা জীবন ধরে উপার্জন করলেও এই বিলের টাকা মেটাতে পারব না।’‌ বিদ্যুৎ দপ্তরের এক্সিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার সাহদব আহমেদ জানান, বিদ্যুৎ বিলটি খতিয়ে দেখার পরই এর আসল কারণ জানানো সম্ভব হবে। তিনি বলেন, ‘‌কিছু কিছু বিলের ক্ষেত্রে এরকম ব্যতিক্রম হয়েছে। এই বিলটি বদলে দেওয়া হবে এবং পুনরায় মিটার পরীক্ষা করা হবে। যদি বিলটি সঠিক হয় তবে গ্রাহককে ওই অঙ্কের টাকাই বিদ্যুৎ বিল হিসাবে দিতে হবে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বিজেপি উত্তর প্রদেশের সরকারে আসার সময় তাদের মনে হয়েছিল অখিলেশের পার্টি নৈরাজ্য সৃষ্টি করে রেখেছে , আর সেই জন্যই কড়া প্রশাসক বলে পরিচিত যোগী আদিত্যনাথ কে মুখ্যমন্ত্রীত্তের পদে বসিয়ে ছিল , এতে লাভ কি হল বলতে পারে বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ।

No comments:

Post a Comment

loading...