Monday, 7 January 2019

প্রবীণ এনসিপি নেতা ‘আঁখ মারে ও লড়কি আঁখ মারে’ গানের তালে কোমর দোলালেন , পড়ুন ।

ওয়েব ডেস্ক ৭ই  জানুয়ারি ২০১৯:  বুড়ো বয়সে ভিম্রুতি হলে যা হয় । এখন এই কথাটাই এলাকার সাংসদ মধুকর কুকড়ের পক্ষে যথাযথ ।রাজনীতিতে শালীনতা আগেই লোপ পেয়েছিল ইদানিং বয়েসের কথা মাথায় না রেখে কোমর দোলানোয় বেশি মন দিচ্ছেন প্রভাবশালী মানুষেরা । প্রসঙ্গত ‘আঁখ মারে ও লড়কি আঁখ মারে’ গানের সাথে স্কুল ছাত্রীদের সাথে নাচতে দেখা গেল মধুকর কুকড়েকে ।যেটা রণবীর সিং–সারা আলি খানের সদ্য মুক্তি পাওয়া ছবি ‘‌সিম্বায়’‌ সুপারহিট হয়েছে।স্কুলের অনুষ্ঠানে ‘আঁখ মারে’ গানের সঙ্গে নাচ মঞ্চস্থ হতে পারে কিনা তা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন মারাঠা মুলুকের রক্ষণশীলরা।

 কিন্তু তার থেকেও বেশি সমালোচনা শুরু হয়েছে মধুকর কুকড়ের নাচ নিয়ে। প্রবীণ এই নেতা আগে বিজেপিতে ছিলেন। ২০১৭ সালে বিজেপির ভাণ্ডারা–গোন্ডিয়ার সাংসদ নরেন্দ্র মোদির তীব্র সমালোচনা করে দল ছাড়েন।তাই সেখানে উপ নির্বাচন অনিবার্য হয়ে ওঠে। এবং সেই উপ নির্বাচনে এনসিপি থেকে টিকিট পেয়ে তাঁর পুরনো দলের প্রার্থীকে ৪৮ হাজার ভোটে পরাস্ত করেছিলেন মধুকর।এর আগে বিহার, উত্তরপ্রদেশের গ্রামে এ ধরনের ঘটনা অনেকসময়ই দেখা যেত। কোথাও হিন্দি গানের সঙ্গে মঞ্চে নাচছেন পুলিশ কর্তা, কোথাও স্থানীয় রাজনীতিবিদ। কিন্তু মহারাষ্ট্রে এ ধরনের ঘটনা এই প্রথম। তাও এক জন প্রবীণ সাংসদ এই কাণ্ড ঘটানোয় আরও হই চই পড়ে গিয়েছে। ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়েছে শরদ পাওয়ারের দল এনসিপি। দলের মুখপাত্র ডিপি ত্রিপাঠি বলেন, ‘‌কাণ্ডজ্ঞানহীন কাজ করেছেন মধুকর। ওঁনার উচিত এলাকার মানুষের থেকে ক্ষমা চেয়ে নেওয়া।’‌ শুধু মহারাষ্ট্র নয়, দিল্লিতেও এই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সংসদে শীতকালীন অধিবেশন চলছে। সোমবার অধিবেশন বসার আগে দেখা গেল, সাংসদদের অনেকেরই মোবাইলে মোবাইলে ঘুরছে ওই ভিডিও।সূত্রের খবর অনুসারে মধুকর কুকড়ের এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি এবিষয়ে ।তাহলে কি উকিলের সাথে পরামর্শ করেই প্রতিক্রিয়া জানাবেন ? 

No comments:

Post a Comment

loading...