Wednesday, 2 January 2019

ছাত্র ছাত্রীদের সুবিদার্থে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার চালু করছে স্কুল ইনফর্মেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম

ওয়েব ডেস্ক ২রা  জানুয়ারি ২০১৯:মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার আসবার আগে শিক্ষা ব্যবস্থার অবস্থা কি ছিল ? ধরুন কোনো ছাত্র বা ছাত্রী মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিকে ভাল পরীক্ষা দিয়েও তাদের রেজাল্টে এক  বিষয়ে বা একাধিক বিষয়ে ফেল দেখাচ্ছে  ।তখন নিয়ম অনুসারে রিভিউ করলেও নম্বরের কোনো পরিবর্তন ঘটতনা ।আর রিভিউ রেজাল্ট আসত সামনের মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার প্রাক্কালে ।যখন এমনিতেই তাদের একটা বছর নষ্ট হয়ে যেত ।আর টি আই করলে পরীক্ষার মধ্যে তাদের সময় দেওয়া হত যাতে ছাত্রছাত্রীরা তাদের খাতা দেখতে না আসতে পারে ।এখানেই শেষ নয় যদি কোনো ছাত্র বা ছাত্রী (যারা আর টি আই করতো )তাদের পরীক্ষার  খাতা দেখার পর বোর্ডের খাতা দেখার গাফিলতি ধরিয়ে দিত তখন তাদের বোর্ডের তরফ থেকে কোর্ট দেখিয়ে দেওয়া হত , যাতে আরও সময় নষ্ট হয় একজন ছাত্র বা ছাত্রীর ।এ সবই হত সিপিএম জমানায় ।


কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আমলে ছাত্র ছাত্রীদের জীবন নিয়ে খেলা বন্ধ হয়েছে ।শুধু তাই নয় যাতে ছাত্র ছাত্রীরা কোনোরকম অসুবিধের মধ্যে না পরে তার জন্য তৃণমূল সরকার রাজ্যের সরকারি স্কুলগুলিতে চালু করছে  স্কুল ইনফর্মেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (এসএমএস)। স্কুলগুলিতে তথ্য জানার অধিকার আইনে আবেদন করেও জবাব মেলে না বলে অভিযোগ আছে বহু , এই অবস্থায় স্কুল স্তরে যাতে যাবতীয় তথ্য চটজলদি পাওয়া যায়, তার জন্যই এই ব্যবস্থা। এই সিস্টেমে সড়গড় হয়ে উঠতে জেলায় জেলায় স্কুলের প্রধান শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ চলছে।বিকাশ ভবন সূত্রের খবর, এসএমএস পোর্টালে স্কুলের পরিকাঠামো থেকে শুরু করে পড়ুয়া, শিক্ষক, শিক্ষাকর্মী সকলের তথ্যই থাকবে। প্রধান শিক্ষক প্রয়োজনে সব সহশিক্ষক, শিক্ষাকর্মী, ছাত্র, এমনকি ইচ্ছুক অভিভাবকদেরও ওই পোর্টালে ঢোকার অনুমতি দিতে পারবেন। প্রত্যেক পড়ুয়ার মাসিক উপস্থিতি ও পরীক্ষার ফলাফল আপলোড করতে হবে ওই পোর্টালে। তা ছাড়া আইডেন্টিটি কার্ড, প্রোগ্রেস রিপোর্ট, ট্রান্সফার সার্টিফিকেট ওই পোর্টাল থেকে পেয়ে যাবে ছাত্রছাত্রীরা।প্রযুক্ত ও অধিকারের এই সহাবস্থান ঠিকঠাক ফলপ্রসূ হলে তাতে উপকৃত হবে আখেরে রাজ্যের পড়ুয়ারা।স্বাভাবিক ভাবেই ছাত্র ছাত্রীরা খুশি । 

No comments:

Post a Comment

loading...