Tuesday, 26 February 2019

বিজেপি শাসিত রাজ্যে মুক–বধিরদের ওপর পুলিশের লাঠি চার্জ , সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়

ওয়েব ডেস্ক ২৬শে  ফেব্রুয়ারী ২০১৯:একদিকে যখন বিজেপি সরকার সার্জিকাল স্ট্রাইক-২ নিয়ে মাতামাতি করছে লাগামহীন ভাবে তখনি বিজেপি শাসিত রাজ্যে অমানবিক অত্যাচারের শিকার হতে হল মুক–বধিরদের।প্রসঙ্গত উপযুক্ত চাকরি এবং পঠনপাঠনের সুবিধার দাবিতে মহারাষ্ট্রের পুনেতে জড়ো হয়েছিলেন হাজার হাজার মূক–বধির তরুণ–তরুণী। আর তাঁদের কোনও কথা না শুনেই চলল লাঠিচার্জ। আটকও করা হল কয়েকজনকে।


এই ঘটনার সমালোচনা শুরু হয়েছে দেশজুড়ে। সোমবার সকালে পুনের ডিজেবেলিটি কমিশনারের অফিসের সামনে জড়ো হন কয়েক হাজার তরুণ–তরুণী। তাঁদের দাবি ছিল, কর্মসংস্থান এবং পঠনপাঠনের ক্ষেত্রে তাঁদের সুবিধা দিতে হবে। কিন্তু সেই দাবি না শুনেই তাঁদের ওপর লাঠি চালানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিসের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় সমালোচনার মুখে পড়েছে মহারাষ্ট্রের দেবেন্দ্র ফড়ণবীশের সরকার। পুনের পুলিস কমিশনার কে ভেঙ্কটেশমের কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবীশ।স্টেট লেভেল অ্যাসোসিয়েশন অফ দ্য ডিফ নামের একটি সেচ্ছাসেবি সংগঠনের সভাপতি প্রদীপ মোরে জানান, কারও কথা শোনেনি পুলিস। লাঠির আঘাতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।। এমনকী কয়েকজনকে পুলিস গ্রেপ্তার করেছে বলেও অভিযোগ। এমনকী পুলিসের মারের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে ফেসবুকে। এই ঘটনায় আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মহারাষ্ট্রের প্রায় ১৮ লক্ষ মূক ও বধির তরুণ–তরুণী ভোট দেবেন না বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। সার্জিকাল স্ট্রাইক -২ তে অতি উৎসাহী হয়েই কি এরকম নির্মাণ কাজ করেছে পুলিশ ? এর উত্তর অবশ্য পাওয়া যায়নি । তবে এর ফল যে বিজেপির পক্ষে ভালো হবেনা সেটা এখন থেকেই বলে দেওয়া যায়।

No comments:

Post a Comment

loading...