Wednesday, 27 February 2019

সবাই পাকিস্তানের থেকে দূরে সরে গেছে , খুললাম খুল্লা বললেন প্রাক্তন পাকিস্তানী রাষ্ট্রদূত হুসেন হাক্কানি

ওয়েব ডেস্ক ২৭শে  ফেব্রুয়ারী ২০১৯: বিরোধী যদি শক্তিশালী হয় তাহলে সরকার সঠিক পথ নিতে বাধ্য হয় , তাদের কাজকর্মের গতি আসে । আর এই কথাটাই সত্যি করে মোদী সরকারের জঙ্গি নিধন কর্মকান্ড পাকিস্তানের বালাকোটে।  আর এতেই বেকায়দায় পড়েছে পাকিস্তান , এবার আসল সত্যটা বেরিয়ে এলো আমেরিকার প্রাক্তন পাকিস্তানি দূতের মুখ থেকেই ।তিনি বলেন পাকিস্তানের ভূখণ্ডে ভারতীয় বায়ুসেনার এয়ার স্ট্রাইকের পর, এটা আন্তর্জাতিক মহলেও বলা হচ্ছে যে, চিন সহ অন্যান্য সব দেশই ভারতের পক্ষে কথা বলছে।
কথা বলছে পাকিস্তানের বিপক্ষে।হুসেন হাক্কানি আরো বলেন সন্ত্রাসবাদীদের ‘স্বর্গ' হিসেবে যাকে দেখা হতো এতদিন, সেই পাকিস্তানের প্রতি গোটা বিশ্বের সহনশীলতাই ক্রমশ কমে যাচ্ছে। মঙ্গলবার ভোর রাতে নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে আরও ৮০ কিলোমিটার ভিতরে ঢুকে পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া রাজ্যে জইশ-ই-মহম্মদের বালাকোটের সবথেকে বড় ঘাঁটিটি ভেঙে দিয়ে আসে ভারত। ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এই এয়ার স্ট্রাইকের ফলে মৃত্যু হয়েছে বহু সংখ্যক জঙ্গি এবং ওই ঘাঁটিতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ভবিষ্যতের জঙ্গি ও জইশের সিনিয়র কম্যান্ডারদের।১৯৭১ সালের যুদ্ধের পর এই প্রথমবার ভারতীয় বায়ু সেনা পাক ভূখণ্ডে ঢুকে আক্রমণ চালাল।সংবাদসংস্থা পিটিআইকে আমেরিকার ওই প্রাক্তন পাকিস্তানি রাষ্ট্রদূত হুসেন হাক্কানি বলেন, “ভারতের এয়ার স্ট্রাইকের পর এই কথা বলা হচ্ছে যে, কোনও দেশই এই লড়াইতে পাকিস্তানের সঙ্গে নেই”।একটি প্রশ্নের জবাবে হুসেন হাক্কানি এই কথাও বলেন যে, এমনকি, পাকিস্তানের দীর্ঘদিনের ‘বন্ধু' চিনও পাকিস্তানের ভূখণ্ডে ভারতের হামলা চালানোর ঘটনাটি সম্বন্ধে পাকিস্তানের পক্ষে না দাঁড়িয়ে নিজেদের একদম গুটিয়ে নিয়েছে।প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর সঙ্গে বহুদিনের সমস্যা হুসেন হাক্কানির। পাকিস্তানের বেশ কয়েকটি চরমপন্থী সংগঠনের থেকেও প্রায়শই হুমকি শুনতে হয় তাঁকে।যতই পাকিস্তানী মিডিয়া ভারতের এই জঙ্গি নিধনকে লঘু করে দেখার চেষ্টা করুক , তাদের প্রাক্তন রাষ্ট্রদূতই আসল কথাটা বলে ফেললেন ।

No comments:

Post a Comment

loading...