Sunday, 10 February 2019

একদিকে যখন তৃণমূল বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস খুন , অন্য দিকে শুভেন্দুর ঘনিষ্ট রীতেশ রায় নিরুদ্দেশ , উৎকণ্ঠায় পরিবার

ওয়েব ডেস্ক ১০ই ফেব্রুয়ারী ২০১৯: এক দিকে যখন তৃণমূলের বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাসের খুন বাংলার রাজনীতিকে নাড়িয়ে দিচ্ছে ,ঠিক সেই সময় আরো একটা ঘটনা সামনে এলো যা গায়ের লোম খাড়া করার পক্ষে যথেষ্ট  ।বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের সভার পর রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে গেলেন এলাকার দাপুটে নেতা।
পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথিতে শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ নেতার নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। তিনদিন অতিক্রান্ত, কোনও খোঁজ নেই তৃণমূল নেতা রীতেশ রায়ের। ৭ ফেব্রুয়ারি একিট ফোন আসার পরই তিনি বেরিয়ে গিয়েছিলেন। তারপর তিনি ফিরে আসেননি।গত ২৯ জানুয়ারি কাঁথির পদ্মপুথুরিয়াতে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের সভাকে কেন্দ্র করে তুমুল সংঘর্ষ বাধে। তৃণমূল নেতা রীতেশ রায়ের বাড়ির পাশেই সভা ছিল অমিত শাহের। অমিত শাহের সভা শেষে ফেরার পথে বিজেপি কর্মীরা তৃণমূল পার্টি অফিসে ভাঙচুর করে বলে অভিযোগ।এরপরই রহস্যজনকভাবে ৭ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় নিখোঁজ হয়ে যান কাঁথির দুরমুঠ অঞ্চল সভাপতি রীতেশ রায়। ওইদিন সন্ধ্যায় রীতেশ রায়ের মোবাইলে একটি ফোন আসে। তারপরই তিনি বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। বাড়িতে বলে যান, শৌভিক চক্রবর্তী নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে দেখা করতে তিনি কোলাঘাটে যাচ্ছেন।কিন্তু তারপর রাত গড়িয়ে গেলেও তিনি বাড়ি ফিরে আসেননি। ওই রাতেই একবার স্ত্রী মহুয়ার সঙ্গে একবারই ফোনে কথা হয় তাঁর। তিনি জানান, এক পরিচিত খুব অসুস্থ, তাই তিনি মালদহে যাচ্ছেন তাঁকে দেখতে। তারপর থেকেই রীতেশের ফোন সুইচড অফ। রীতেশের পরিবারের দিন কাটছে আতঙ্কের মধ্যে। তাঁরা ইতিমধ্যেই মারিশদা থানার দ্বারস্থ হয়েছেন। অভিযোগের তির বিজেপির দিকে। বিজেপি এই অভিযোগ সম্পূর্ণ উড়িয়ে দিয়েছেন।

No comments:

Post a Comment

loading...