Thursday, 28 February 2019

জঙ্গল মহলের কথা ভেবে সাঁওতালি ভাষার শিক্ষক নিয়োগ করছে রাজ্য

ওয়েব ডেস্ক ২৮শে  ফেব্রুয়ারী ২০১৯: তৃণমূলের আমলে যেভাবে জঙ্গল মহলের উন্নতির ব্যাপারে সূত্রপাত করা হয়েছে , বিগত বাম আমলে সেগুলো ছিল স্বপ্ন ।দিনের পর দিন জঙ্গল মহলের মানুষরা পাতা লতা , সেদ্ধ করে খেয়ে দিন কাটিয়েছে আলিমুদ্দিনের দয়ায়।এখন দিনকাল বদলেছে , তাদের উন্নতির জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আছেন ।প্রসঙ্গত ঝাড়গ্রামের জঙ্গলমহলে শিক্ষক প্রশিক্ষণের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের উদ্বোধন করলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি। নতুন ক্যাম্পাসটি হল রামগড়ে। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘‌অর্থনৈতিক ভাবে পিছিয়ে পড়া মানুষের স্বার্থে শিক্ষার সুযোগকে দোরগোড়ায় এনে দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। এতে সব থেকে বেশি উপকৃত হচ্ছেন জঙ্গলমহলের মানুষ। কেউ কল্পনাও করতে পারেননি এখানে মেডিক্যাল কলেজ হবে। কেউ ভাবতেও পারেননি এখানে বিশ্ববিদ্যালয় হবে, কলেজ হবে। ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের সুযোগ–সুবিধা থাকবে। এখানে স্কুলের সংখ্যা প্রায় দেড়শো। এখানকার মানুষ সরকারি প্রকল্পের সুযোগ পায়।’‌
এদিনের অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জির সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার সুকুমার হঁাসদা, সাংসদ উমা সোরেন, গোপীবল্লভপুরের বিধায়ক তথা প্রাক্তন মন্ত্রী চুড়ামণি মাহাতো প্রমুখ। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘‌শিক্ষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উন্নত পরিকাঠামোর পাশাপাশি ভাল প্রশিক্ষক যাতে তৈরি হয়, সেদিকে নজর দেওয়া হবে। সঁাওতালি ভাষার ২৮৪ জন শিক্ষক নেওয়া হবে। আমরা চাই সঁাওতালি ভাষারও প্রশিক্ষণ হোক। বাংলার সঙ্গে সঁাওতালি ভাষারও যাতে প্রশিক্ষণ হয়, সেটা দেখা হবে। সরকার আপনাদের পাশে আছে।’ ‌শিক্ষামন্ত্রী জানান, জঙ্গলমহলের কাছে মমতা ব্যানার্জি আশীর্বাদস্বরূপ। আমরা যতটা পারি তঁাকে সাহায্য করি। এদিন ফের তিনি জঙ্গলমহলের উন্নয়নের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বলেন, ‘‌যদি কেউ আগের ছবি তুলে রাখেন, তা হলে লালগড়ের কী পরিবর্তন হয়েছে বুঝতে পারবেন। আসলে শান্তি ও সম্প্রীতি যদি থাকে, তা হলে উন্নয়ন হবে। শুধু সরকার সেটা পারে না, সকলের সহযোগিতা চাই।’‌  

No comments:

Post a Comment

loading...