Saturday, 23 March 2019

চাকরি দেওয়ার নামে টাকা আত্ত্বসাৎ বঙ্গ বিজেপি নেতার

ওয়েব ডেস্ক  ২৩শে  মার্চ ২০১৯:যত দিন যাচ্ছে বিজেপি নেতাদের কেচ্ছা কেলেঙ্কারি ততই সামনে আসছে  । এরা বাংলার ক্ষমতায় আসবার আগেই যদি এরকম অবস্থা হয় তাহলে , এরা ক্ষমতায় যদি কখনো কালবৈশাখে আসে তাহলে কি হবে ? এই প্রশ্নটাই সর্বত্র ।প্রসঙ্গত অনুতোষ বিশ্বাস হাবড়া থানার ফুলতলা এলাকার বাসিন্দা। নিজের এলাকায় বিজেপি নেতা বলে তিনি পরিচিত। ১০ মার্চ নদিয়া জেলার হাঁসখালি থানার এক যুবক হাবড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন চাকরি দেওয়ার নাম করে অনুতোষ বিশ্বাস ৬ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকা প্রতারণা করেছে।
ওই যুবকের দাবি, ২০১৫ সালে প্রাথমিক শিক্ষকের একটি পরীক্ষা দিতে গিয়ে এক বন্ধু মারফত অনুতোষের সঙ্গে পরিচয় হয়। ওই যুবকের অভিযোগ, চাকরি পাইয়ে দেওয়ার বিষয়ে তাঁকে আশ্বস্ত করে অনুতোষ। কিন্তু তার জন্য কিছু টাকা খরচ করতে হবে বলে দাবি করেন অভিযুক্ত। আর তা হলেই চাকরি হয়ে যাবে। বেকার ওই যুবক অনুতোষের কথা বিশ্বাস করে তঁার বাড়িতে যান। চাকরির আশায় ওই যুবক ধার–দেনা করে ৬ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকা জোগাড় করেন। সেই টাকা অনুতোষের হাতে তুলে দেন বলে ওই যুবকের দাবি। যদিও ফল প্রকাশের পর দেখা যায় ওই যুবকের নাম তালিকায় নেই। তখনই তিনি বুঝতে পারেন, তিনি প্রতারিত হয়েছেন। তখন তিনি অনুতোষের বাড়িতে গিয়ে টাকা ফেরত চান। অনুতোষ দিন বাড়াতে থাকেন। অভিযোগ, অনুতোষ ওই যুবককে হুমকি দেন। প্রাতারিত যুবক জানান, তিনি একা নন, তাঁর মতো একাধিক বেকার যুবক–যুবতীর সঙ্গে একই ঘটনা ঘটেছে। প্রতারিত যুবকের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে হাবড়া থানার পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, অনুতোষ সরকারি চাকরি করার কারণে তাঁর উদ্দেশে নোটিস জারি করা হয়েছে। কোনও উত্তর না দিলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে অনুতোষের বাড়িতে গিয়ে যোগাযোগ করা হলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তিনি বাড়িতে নেই। তবে বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আমলে আইন চলেছে তার নিজের পথেই । অভিযুক্ত বিজেপি নেতা সত্যি এরকম কিছু করে থাকলে তার শাস্তি তাকে পেতেই হবে বলে মনে করেন বিদ্যজনেদের একাংশ । 

No comments:

Post a Comment

loading...