Wednesday, 6 March 2019

বিজেপি কর্মীরা গুগলে সার্চ করছেন মমতার কোন ধর্মের , মমতার উত্তর তার একটাই ধর্ম মানব ধর্ম

ওয়েব ডেস্ক ৬ই  মার্চ ২০১৯: এবারের লোকসভা ভোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে এক চুলও জমি নরেন্দ্র ভাই কে ছাড়বেনা সেটা এক রকম  পরিষ্কার । হাওড়ার ডোমজুড়ে একাধিক প্রকল্প উদ্বোধন করতে গিয়ে মোদীজিকে একহাত নিলেন তিনি ।মমতা বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকারের এক্সপায়েরি ডেট আসন্ন। ভোট আসছে, তাই মোদি সরকার দেশে বিভাজনের রাজনীতি করছে। তথ্য বিকৃতির চেষ্টা করছে। এখন খালি বন্দুক, বোমা, মিসাইল দেখাচ্ছে। একটা কথা পরিস্কার করে জানাতে চাই, আমরা সেনার সঙ্গে, দেশের মানুষের সঙ্গে, সভ্যতা–শিক্ষা–সংস্কৃতির সঙ্গে আছি। কিন্তু মোদিবাবুর সঙ্গে নেই। মোদি–অমিত শাহ গেলে দেশ বেঁচে যাবে।‌’
 এরপরই তিনি বিজেপি কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, ‘‌বিজেপি কর্মীরা গুগলে সার্চ করে জানতে চাইছে, আমার ধর্ম কী? তাঁদের একটা কথা বলে দিতে চাই, আমার একটাই ধর্ম। আর সেটা হল মানবিকতা।‌’ এদিনের বক্তৃতায় একাধিক প্রকল্পের কথাও তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী। জানান, নতুন করে তিন একর জমিতে স্বাস্থ্যভবন তৈরি হবে। আর সেটা হবে নবান্নের পিছনের জমিতে। এছাড়া তিনি আরও বলেন, ‘‌রাজ্যে ৩০টি হেলিপ্যাড তৈরি হয়েছে। মালদা, কোচবিহার, বালুরঘাট, অন্ডালে বিমানবন্দর তৈরি হয়েছে। আগামিদিনে পুরুলিয়াতেও একটি বিমানবন্দর তৈরি করা হবে। আমাদের কন্যাশ্রী প্রকল্প এখন বিশ্বে সেরার তকমা পেয়েছে। পশ্চিমবঙ্গই একমাত্র রাজ্য যেখানে কৃষিজমিতে খাজনা নেই। ১৯৪৭ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত রাজ্যে ১২টি বিশ্ববিদ্যালয় ছিল। আর গত সাড়ে সাত বছরে ২৯টি বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করেছি আমরা। আরও ১০টি বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করা হবে। কেন্দ্র তো খালি মিথ্যে কথা বলে। কেন্দ্রের টাকা আমরা নিই না। আর ওরা কোনও কিছুতে টাকা দেয়ও না। অথচ সমালোচকরা এই উন্নয়ন চোখে দেখতে পাচ্ছেন না। এত কাজ করার পরও বলবেন, মা, মাটি, মানুষের সরকার কোনও কাজ করছে না। অথচ আজ কলকাতা পুরো পাল্টে গেছে।’ এর পাশাপাশি কর্ম সংস্থানের ব্যাপারেও মোদীজিকে একহাত নেন তিনি । তবে এটা ভুললে চলবেনা যে মোদীজি সরকারে আসার আগে বলেছিলেন বছরে দুকোটি বেকারকে চাকরি দেবেন , সেই কথা তিনি রাখতে পারেননি ।

No comments:

Post a Comment

loading...