Friday, 1 March 2019

কতটা অশিক্ষিত বর্বর হলে নিজের দেশের পাইলটের পরিচয় পত্র পাওয়ার পরেও তাকে গণপ্রহার করে স্থানীয় পাকিস্তানিরা !

ওয়েব ডেস্ক ১লা মার্চ  ২০১৯: পাকিস্তান কতটা অপদার্থ দেশ , কতটা নিরক্ষর এবং উগ্রবাদীতে ভরা তার আঁচ সেখানকার রাজনৈতিক নেতারা না পেলেও তাদের বায়ুসেনার পাইলট বুঝতে পারলেন । প্রসঙ্গত পাকিস্তানের অভিসন্ধি ছিল ভারতের সামরিক ঘাঁটিতে বোমা ফেলা , যুদ্ধ বিমান থেকে , কিন্তু ভারতের বায়ু সেনাদের তাড়া খেয়ে এবং নিজেদের একটি যুদ্ধ বিমান ক্ষতিগ্রস্ত করে এক পাকিস্তানী পাইলট তার নিজের দেশে প্যারাসুটে নেমেই স্থানীয় পাকিস্তানিদের হাতে প্রহৃত হলেন । বারং বার  নিজের পরিচয়ে দেওয়া সত্ত্বেও স্থানীয় অশিক্ষিত পাকিস্তানিদের হাত থেকে নিস্তার পেলেননা ।
উল্লেখ্য, পাকিস্তানের একাধিক প্রথম সারির পত্রিকা জানিয়েছে, অভিনন্দন বর্তমান পাকিস্তানে পৌঁছেতেই তাঁকে দেখে ছুটে আসেন স্থানীয়রা। অভিনন্দন প্রশ্ন করেন 'এটা পাকিস্তান না ভারত?' উত্তর জানতে পেরেই নিজের প্রাণের কদর না করে আগে তিনি রক্ষা করেন গোপন নথি। তারপরই স্থানীয়রা তাঁর ওপর চড়াও হয়ে মারধর করতে থাকে,যথন তাঁরা জানতে পারেন আহত অভিনন্দন পাকিস্তানি নন, বরং ভারতীয়। এদিকে,পাকিস্তানের যুদ্ধবিমান এফ ১৬ এর একত পাইলট আহত হয়েও ওই পাক অধিকৃত কাশ্মীরে পড়ে যান। তাঁর চোট ছিল গুরুতর। তিনি সেই অবস্থায় জানান যে তিনি পাকিস্তানি। কিন্তু স্থানীয়রা নিজের দেশের পাইলটকেই বিশ্বাস করতে পারেননি। প্রথমেই আহত পাক পাইলটকে ঘিরে ধরে শুরু হয় মারধর।পাকিস্তানের ওই এলাকার বাসিন্দারের মারধরের পর্যায় এতটাই চরম ছিল যে , তার জেরে সেখানেই আরও অসুস্থ হয়ে যান ওঅই পাক পাইলট। স্থানীয়রা কিছুতেই বিশ্বাস করতে চাননি তিনি পাকিস্তানি পাইলট। শোনা যাচ্ছে, এই মারধরের ঘটনার জেরেই পাকিস্তান প্রথমে বিশ্বাস করেছিল যে ২ জন ভারতীয় পাইলট পাকিস্তানে অবতরণ করেছে। কিন্তু পরে জানানো হয়, সংখ্যা ২ জনের নয়, বরং ১ জন ভারতীয় বায়ুসেনা পাইলট পাকিস্তানের কব্জায় রয়েছে। আর আজ সেই ভারতীয় পাইলটকে পাকিস্তান মুক্ত দিতে চলেছে ।

No comments:

Post a Comment

loading...