Sunday, 10 March 2019

জাতীয় সংগীতের সময় উঠে দাঁড়াতে পছন্দ করেননা দক্ষিণের ষ্টার অভিনেতা পবন কল্যাণ

ওয়েব ডেস্ক ১০ই  মার্চ ২০১৯:  ভারতের মতো গণতান্ত্রিক দেশে সবারই নিজের মত প্রকাশের    অধিকার আছে । তবে এমন কিছুই করা বা বলা উচিত নয় যা নিজের দেশাত্ত্ব বোধকে নিয়ে মানুষ  সন্দেহ  প্রকাশ করে । ঠিক এরকমই কিছু বলে শিরোনামে চলে এলেন দক্ষিণের ষ্টার অভিনেতা পবন কল্যাণ । তবে এতে তার টিআরপি বাড়বে না কমবে সেটা কোনো শিশুও বলে দিতে পারে ।

 প্রসঙ্গত , বিজেপি সরকার আসার পর ২০১৬ সালে শীর্ষ আদালত নির্দেশিকা জারি করেছিল দেশের প্রত্যেকটি সিনেমা হলে পদর্শনের আগে জাতীয় সঙ্গীত বাজানো বাধ্যতা মূলক করতে হবে। এবং জাতীয় সঙ্গীত চলাকালীন দর্শকদের উঠে দাঁড়াতে হবে। এই নিয়ে অনেক জলঘোলা হয়েছিল সে সময়। সেই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে দক্ষিণের অভিনেতা পবন কল্যাণ শনিবার মন্তব্য করেছেন, সিনেমা হলে জাতীয় সঙ্গীত জলাকালীন উঠে দাঁড়াতে তিনি পছন্দ করেন না। অন্ধ্র প্রদেশের কর্নুলে একটি আলোচনা সভায় যোগ দিয়েছিল পবন। সেখানেই তিনি বলেন, পরিবার বন্ধু–বান্ধবদের নিয়ে সিনেমা হলে বিনোদনের জন্য অবসর কাটাতে যায় মানুষ, সেখানে দেশভক্তি দেখানোর জায়গা নয়।
রাজনৈতিক স্বার্থে এই নির্দেশ জারি করা হয়েছে। এতোই যদি দেশাত্মবোধ তাহলে নেতারা কেন নিজেদের বৈঠকের আগে জাতীয় সঙ্গীত বাজান না। এটা করে তাঁরা তো দেশে নজির তৈরি করতে পারেন বলে বিজেপি রীতিমত আক্রমণ করেছেন পবন কল্যাণ।
২০১৬ সালে এই নির্দেশিকা জারি হওয়ার পর জনসেনা প্রধান এবং অভিনেতা পবন কল্যাণের বিরুদ্ধে জাতীয় সঙ্গীত অবমাননার অভিযোগ উঠেছিল। এখন প্রশ্ন উঠেই পারে পবন কল্যাণ কি সর্বোচ্চ আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে কথা বলতে চাইছেন । সেটা যদি হয় তাহলে উনি কি আদালত অবমাননা করলেন ? প্রশ্ন রয়েই গেল ।

No comments:

Post a Comment

loading...