Friday, 29 March 2019

চাকরি দেওয়ার নামে খোদ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নির্মলা সিয়াতারামানের সই জাল করলেন বিজেপির পি মুরলীধর রাও, নিন্দা সর্বত্রই

ওয়েব ডেস্ক ২৯ শে  মার্চ ২০১৯: বিজেপি সরকারে আসার পর থেকে অনেক নেতা মন্ত্রী নিজেদের আইনের উর্ধে মনে করছে এই অভিযোগ সাধারণ মানুষের অনেকদিনের ।এবার সত্যি সত্যি মানুষের ধারণা বাস্তবে পরিণত হচ্ছে ।  এতটাও যে সাহস থাকতে পারে ভাবা যায়না । প্রসঙ্গত ২০১৬ সালে তৎকালীন বাণিজ্যমন্ত্রী এবং বর্তমান প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সই জাল করার অভিযোগ উঠল বিজেপিরই এক তাবড় নেতার‌ বিরুদ্ধে। তিন বছর আগে সই জাল করে এক দম্পতিকে চাকরির প্রতিশ্রুত দেন বিজেপির জাতীয় সাধারণ সম্পাদক পি মুরলীধর রাও এবং তাঁর কয়েকজন সহযোগী। এরপর ওই দম্পতির কাছ থেকে ২।‌১৭ কোটি টাকাও নেন তাঁরা।

কিন্তু পরে আর চাকরি দেননি। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় মুরলীধর রাওয়ের ঘনিষ্ঠ কিশোর রাও–সহ আরও ৭ জনের নামে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে সারোরনগর থানায়। প্রতারণার অভিযোগ নিয়ে স্থানীয় আদালতের দ্বারস্থ হন টি প্রবার্না রেড্ডি এবং তাঁর স্বামী মাহিপাল রেড্ডি ওই দম্পতি। আদালতের নির্দেশেই থানায় এফআইআর দায়ের করা হয়। অভিযোগপত্রে তাঁরা জানান, ফার্মাসিউটিক্যালস এক্সপোর্ট প্রোমোশন কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার জাল লেটারহেডে তৎকালীন বাণিজ্যমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণের সই জাল করেন মুরলীধর। তারপর সেই চিঠি দেখিয়ে ওই দম্পতিকে ফার্মা এক্সিল সংস্থার চেয়ারম্যান পদে চাকরি দেওয়ার নাম করে তাঁদের কাছ থেকে ২।‌১৭ কোটি টাকা নেন। কিন্তু টাকা নেওয়ার পর চাকরি দেওয়া নিয়ে টালবাহানা শুরু হয়। এরপর ঈশ্বর দত্ত নামে এই কাজে মুরলীধরের এক সহযোগী টাকা ফেরতের প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু গত ২ বছরে তাঁদের টাকাও ফেরত দেওয়া হয়নি। এরপরই আদালতের দ্বারস্থ হতে বাধ্য হন ওই দম্পতি। সারোরনগর থানার ইন্সপেক্টর ই শ্রীনিবাস জানিয়েছেন, ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪২০, ৪০৬, ৪৬৮, ৪৭১ ও ৫০৬ ধারায় মুরলীধর–সহ বাকিদের নামে মামলা রুজু করা হয়েছে। যদিও সব অভিযোগ অস্বীকার করে মুরলীধর রাওয়ের দাবি, ভোটের আগে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। পুরোটাই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। তাঁর ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই এমনটা করা হয়েছে। পাল্টা তোপ দেগে বলেন এই বিজেপি নেতা।‌‌‌সূত্রের খবর এই খবর চাউর হতেই মুখে কুলুপ এঁটেছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব , কি করে ধামা চাপা দেওয়া যায়, সেই পন্থাই খুঁজছেন তারা ।

No comments:

Post a Comment

loading...