Friday, 26 April 2019

মহুয়া মিত্রের বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্যের খেসারত দিতেই হবে বিজেপি নেতাদের , নির্দেশ সর্বোচ্চ আদালতের

ওয়েব ডেস্ক ২৬শে এপ্রিল ২০১৯: কুরুচিকর মন্তব্য করাটা বিজেপি নেতাদের সংস্কৃতিতে পরিণত হয়েছে ।বিজেপির রাজ্য সভাপতি শুরু করেছিলেন , সেটা এখন প্রতি দিনই ভাইরাস মতো  ছড়িয়ে পড়ছে বিজেপি নেতাদের মধ্যে ।তৃণমূলের মহুয়া মিত্রও এই কুরুচিকর মন্তব্যের থেকে পার পেলেননা ।প্রসঙ্গত নদিয়ার বিজেপি জেলা সভাপতি মহাদেব সরকার এবং বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবের বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্যের অভিযোগ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন কৃষ্ণনগরের তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্র। সেই মামলার শুনানিতেই যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ নির্বাচন কমিশনকে জানায়, কুরুচিকর মন্তব্যের জন্য অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক।
প্রকাশ্য জনসভা থেকে লিঙ্গ বৈষম্যমূলক এবং যৌন হেনস্থামূলক মন্তব্যের অভিযোগে বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানান কৃষ্ণনগরের তৃণমূল প্রার্থী। সেই আবেদনের উপর শুনানিতেই এ দিন শীর্ষ আদালত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেয়।
প্রসঙ্গত, গত ২২ এপ্রিল কৃষ্ণনগরের একটি জনসভায় বিজেপির নদিয়া উত্তরের সভাপতি মহুয়া মৈত্রকে “সুন্দরী রমণী” বলে উল্লেখ করেন৷ মহাদেব সরকার বলেন, “সৌন্দর্য্যে ভর করেই ভোট বৈতরণী পারের চেষ্টা করছে শাসক দল৷ মহুয়া মৈত্রের উদ্দেশে তিনি বলেন, বিদেশে পড়ায় ভারতীয় সংস্কৃতি ভুলে গিয়েছেন আপনি৷ লজ্জাই নারীর ভূষণ৷ আপনি রঙিন জল পান করেন৷ আপনাকে ভারতীয় নারীরা মেনে নেবে না”৷মহুয়া শীর্ষ আদালতের কাছে আবেদনে দাবি করেন, তাঁর উদ্দেশে করুচিকর মন্তব্যকারী বিজেপি নেতাদের সব মিছিল, জনসভা, রোড শো ও প্রচার ৭২ ঘণ্টার জন্য বন্ধ করে দেওয়া হোক।এখন দেখার নির্বাচন কমিশন ঠিক কী ধরনের পদক্ষেপ নেয়!তবে পদক্ষেপ কিছু একটা যে নির্বাচন কমিশন নেবেই , এই ব্যাপারে আশাবাদী অনেকেই ।
এখন শুধুই সময়ের অপেক্ষা ।

No comments:

Post a Comment

loading...