Monday, 8 April 2019

ফের এক বাঙালির মৃত্যু আসামের 'ডিটেনশন ক্যাম্পে ' তবুও বিজেপি তাদের জেদ থেকে সরছেনা

ওয়েব ডেস্ক ৮ই এপ্রিল ২০১৯: আসামের গোয়ালপাড়া ডিটেনশন ক্যাম্পে ফের মৃত্যু ঘটল এক বাঙালির। ডিটেনশন ক্যাম্পে বন্দি অবস্থায় বরপেটা রোডের দশ নম্বর ওয়ার্ডের অমৃত দাসের (৬৭) হৃদরোগে মৃত্যুর ঘটনায় তীব্র আলোড়ন উঠেছে। প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে বেঙ্গলি ইউনাইটেড ফোরাম অব আসাম-এর মুখ্য সমন্বয়ক, সারা অসম বাঙালি যুব ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি মহানন্দ সরক্ষর দত্ত বলেন, সরকারি অপরাধে বাঙালির প্রাণ যায়। অথচ, বন্দিশালায় মৃত অমৃতের নাগরিকত্বের সাপেক্ষে পর্যাপ্ত নথিপ্রমান ছিল। ডিটেনশন ক্যাম্পে নিরীহ মানুষদের প্রাণহানির দায় এড়াতে পারে না সরকার।তিন বছর আগে বিদেশি ট্রাইব্যুনালে বিদেশি বলে ঘোষিত হবার পর ২০১৭ সালের ২০ মে থেকে অমৃত দাসকে গোয়ালপাড়া ডিটেনশন ক্যাম্পে আটক করা হয়েছিল। পঁচিশ দিন আগে গৌহাটি হাইকোর্টও তাকে বিদেশি বলে ঘোষণা করেছিল। অথচ, অমৃত দাসের অসমে বসবাস প্রমাণের সাপেক্ষে ১৯৬১ সালের নথি ছিল। কিন্তু, ১৯৬১ সালের কোনও তথ্য সরকারের হাতে না থাকায় সেই নথির প্রতিলিপি সরকারের হাতে পেস করা সম্ভব হয়নি। সে কারণেই অমৃতকে বিদেশি বলে ঘোষণা করে আদালত।গতকাল শনিবার, অমৃতবাবু হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে গোয়লপাড়া অসামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। কিন্তু, সেই রাতেই তিনি মারা যান। ডিটেনশন ক্যাম্প কর্তৃপক্ষ মৃতদেহটি হস্তান্তরের জন্য বরপেটা পুলিশের মাধ্যমে মৃতের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। খবর পেয়ে মৃতদেহ গ্রহণ করেন পরিবারের লোকজন। মৃতদেহ বটপেটায় এসে পৌঁছতেই চাপা উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

No comments:

Post a Comment

loading...