Saturday, 20 April 2019

অভিশাপের কথা বলে আনন্দেই ছিলেন, বিজেপি পাশে না দাঁড়ানোয় বাধ্য হয়ে ক্ষমা চেয়েই পরিস্তিতি সামাল দিলেন সাধ্বী

ওয়েব ডেস্ক ২০শে এপ্রিল ২০১৯: ভেবে ছিলেন অভিশাপের কথা বলে লোকের বাহবা পাবেন এবং দলের মধ্যে তার দামটাও বাড়বে ।কিন্তু সেসব কিছুই হলনা কারণ বিজেপি কখনোই উল্টো পাল্টা মন্তব্যের সমর্থন করেনা ।তাই একরকম বাধ্য হয়েই  ক্ষমা চাইলেন সাধ্বী প্রজ্ঞা। মুম্বই হামলায় জঙ্গিদের গুলিতে শহিদ হেমন্ত কারকারেকে নিয়ে তাঁর মন্তব্য ফিরিয়ে নিলেন মধ্যপ্রদেশের বিজেপি প্রার্থী। তিনি জানিয়েছেন, তাঁর এই মন্তব্যের জেরে শত্রুদের সুবিধা হবে। তাই তিনি তাঁর মন্তব্য ফিরিয়ে নিচ্ছেন। আর ক্ষমা চাইছেন।
তবে জেলে থাকাকালীন তাঁর উপর পুলিসি অত্যাচারের অভিযোগ থেকে তিনি যে সরছেন, তাও বুঝিয়ে দিয়েছেন সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর। তিনি জানিয়েছেন, ওই ঘটনা তাঁর ব্যক্তিগত যন্ত্রণার বিষয়।

প্রার্থী হওয়ার পর কর্মীদের সামনে পুলিসি অত্যাচারের কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন বিজেপির প্রজ্ঞা সিং।

মুম্বইয়ে জঙ্গি হামলার শহিদ মহারাষ্ট্রের অ্যান্টি টেররিস্ট স্কোয়াডের প্রধান হেমন্ত কারকারে সম্বন্ধে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন সাধ্বী প্রজ্ঞা। তাঁর অভিযোগ, তাঁর উপর পুলিসি অত্যাচারের নেতৃত্বে ছিলেন হেমন্ত। তাঁকে দিয়ে জোর করে মালেগাঁও বিস্ফোরণের সঙ্গে যুক্ত করতে চেয়েছিলেন।

প্রজ্ঞার দাবি, তিনি তখনই হেমন্তকে অভিশাপ দিয়েছিলেন। সেই কারণেই মুম্বই হামলার সময় হেমন্ত নিহত হয় বলে দাবি করেছেন বিজেপির প্রার্থী।

এর পরই বিতর্ক তৈরি হয়। নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দায়ের হয়। কমিশন জানায়, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রতিবাদ জানায় আইপিএস অ্যাসোসিয়েশনও। এই পরিস্থিতিতে বিবৃতি দেয় বিজেপি। এই ঘটনাকে সাধ্বীর ব্যক্তিগত মন্তব্য বলে দায় এড়ানো হয় বিজেপির তরফে। তারই কয়েকঘণ্টা পরই বয়ান বদল করেন সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর। ক্ষমা চেয়ে নেন।  

No comments:

Post a Comment

loading...