Friday, 5 April 2019

ভারতীয় ইতিহাসে এই প্রথম, বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার জন্য মানুষের কাছে আবেদন করলেন ৬০০ শিল্পী ও কলাকুশলী

ওয়েব ডেস্ক ৫ই এপ্রিল ২০১৯: বিভেদের রাজনীতি নিজ নিজ পেশায় জড়িত মানুষেরা যে মেনে নেবেনা সেটা আরো একবার প্রমাণিত হল । যতই এয়ার স্ট্রাইকের দামামা  বাজিয়ে মোদীজি লোকসভা ভোটের বৈতরণী পার করার চেষ্টা করুকনা কেন যা আগে কখনো ঘটেনি ভারতীয় ইতিহাসে এবার তাই ঘটে চলেছে । প্রসঙ্গত চিত্রনির্মাতা, বিজ্ঞানী পর এবার শিল্পী। বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার আবেদন এবার ৬০০-র বেশি শিল্পীর। বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার আবেদনকারীদের তালিকা ক্রমশ লম্বা হচ্ছে। দেশজুড়ে প্রায় ৬০০ জনের বেশি শিল্পী বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার আবেদনে শামিল হলেন। বিজেপিকে বিভেদকামী শক্তি হিসেবে উল্লেখ করেন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তাদের পরাজিত করার অহ্বান শিল্পীদের। ১২টি ভাষায় এই আবেদন প্রকাশিত হয়েছে artistuniteindia.com ওয়েবসাইটে।
যে ৬০০ অভিনেতা এই আবেদনে স্বাক্ষর করেছেন তাঁদের মধ্যে আছেন গিরীশ কারনাড, নাসিরুদ্দিন শাহ, অমল পালেকর, উষা গাঙ্গুলী, শান্তা গোখলে, মহেশ দত্তানী, এম কে রায়না, মলয়শ্রী হাসমি প্রমুখ। বাংলা, হিন্দি, ইংরেজি, তামিল, মারাঠী, মালয়ালম, কন্নড়, আসামী, তেলেগু, পাঞ্জাবী, কোঙ্কনী এবং উর্দুতে এই আবেদন করা হয়েছে।ওই আবেদনে বলা হয়েছে – ব্রিটিশদের সময় থেকে ভারতীয় থিয়েটার নির্মাতারা তাঁদের কাজের মধ্যে দিয়ে ভারতের বহুত্ববাদকে সামনে নিয়ে এসেছে। আমরা আমাদের কাজের মধ্যে দিয়ে ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রাম, বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা, সমানাধিকারের দাবিকে তুলে ধরেছি। ভারতীয় থিয়েটার নির্মাতারা বৈষম্য, ধার্মিক বিভেদ, সঙ্কীর্ণতার বিরুদ্ধে কাজ করার ঐতিহ্য বহন করে চলেছে। দেড়শো বছর ধরে আমরা ধর্মনিরপেক্ষ, গণতান্ত্রিক ভারত নির্মাণের জন্য কাজ করছি।ওই আবেদনে আরও বলা হয়েছে – কিন্তু এখন আমাদের সব কাজই বিপদের সম্মুখীন। বর্তমান সময়ে গান, নাচ, হাস্যরস – সবকিছুকেই বিপদ ঘিরে রয়েছে। আমাদের ভালোবাসার সংবিধান বিপদের সম্মুখীন। সুস্থ বিতর্কের পরিমণ্ডল সংকুচিত হয়েছে। প্রশ্ন করলে, মিথ্যের প্রতিবাদ করলে, সত্যের পক্ষে বললে তাঁর গায়ে ‘জাতীয়তাবিরোধী’ তকমা লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আমাদের উত্‍সব, আমাদের খাদ্যাভ্যাস, আমাদের প্রার্থনার মধ্যে ঘৃণা ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। এই প্রবণতা খুবই বিপজ্জনক এবং একে এখুনি থামানো দরকার।ভারতীয় ইতিহাঁসে এমন কখনো ঘটেনি , শিল্পীরা কোনো বিশেষ রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে প্রচার করছে মানুষের কাছে ভোট না দেওয়ার জন্য । অমিত সাহেরা শুনছেন তো ?

No comments:

Post a Comment

loading...