Wednesday, 3 April 2019

প্রচুর টাকা খরচ করে বিজেপি ট্রেন ভাড়া করেছিল মমতার নিন্দে শোনাবে বলে ,বাংলার মানুষই সেই বাড়া ভাতে ছাই দিল

ওয়েব ডেস্ক ৩রা এপ্রিল ২০১৯: বাংলায় একটা কথা আছে , বড় করে পাতা বেছালে কি হবে ভগবানের দেওয়ার আন্দাজ আছে ।এখন এই কথাটাই বিজেপির জন্য আদর্শ হয়ে উঠছে । লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে ট্রেন ভাড়া করেছিল বিজেপি , লোক আসবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিন্দে শুনতে এই আশাতেই ।আদতে সেই আশাতেই জল ঢেলে দিল বাংলার মানুষ ।প্রসঙ্গত ব্রিগেডে নরেন্দ্র মোদির জনসভায় লোক আনতে চারটি ট্রেন ভাড়া করেছে বিজেপি। খরচ হয়েছে প্রায় ৫৩ লক্ষ টাকা। ঝাড়গ্রাম, লালগোলা, পুরুলিয়া, রামপুরহাট থেকে ইতিমধ্যে ট্রেনগুলি রওনা দিয়েছে কলকাতার উদ্দেশে। কিন্তু ঝাড়গ্রাম থেকে যে ট্রেনটি ছেড়েছে, তার একটি কামরাও ভর্তি হল না পুরো। রাজ্য বিজেপি দাবি করছে, মোদির ব্রিগেড নাকি সাম্প্রতিককালের সবচেয়ে বড় ব্রিগেড হবে। কিন্তু বাস্তব চিত্র অন্য কথা বলছে।
বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশে ঝাড়গ্রাম জেলা থেকে কয়েক হাজার লোক নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। জঙ্গলমহল থেকে প্রচুর মানুষ মোদির সভায় যোগ দেবেন। এই আশায় রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে ঝাড়গ্রাম স্টেশনে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়। ভোর চারটের সময় ঝাড়গ্রাম থেকে হাওড়ার উদ্দেশে ট্রেন ছাড়ার কথা ছিল। কিন্তু তখন লোক হয়নি দেখে ট্রেনের সময় পরিবর্তন করা হয়। পৌনে সাতটা নাগাদ ট্রেন ছাড়লেও পুরো ভরেনি ট্রেনের একটি কামরাও। ঝাড়গ্রাম শহর বিজেপির পক্ষ থেকে একটি ৭০–৮০ জনের মিছিল ভোর চারটে নাগাদ ঝাড়গ্রাম স্টেশনে পৌঁছায়। ভোর ৬টা পর্যন্ত মেরেকেটে লোক হয় ১৫০। ট্রেনের সময় পরিবর্তনের পাশাপাশি খড়গপুর ও মেচেদায় ট্রেনটিকে দাঁড় করানো হবে। যাতে ট্রেনটি অন্তত ভর্তি হয়। রাজনৈতিক মহলের একাংশের অভিমত , এই রকমও দিন বিজেপির দেখতে হচ্ছে , যে ট্রেন দাঁড় করিয়ে ভরানো চেষ্টা ?

No comments:

Post a Comment

loading...