Friday, 19 April 2019

মমতার মাথার দাম ধার্য্য করেছিলেন ১১ লক্ষ টাকা , সর্বোচ্চ আদালত পাল্টা দিল বিজেপি নেতার আর্জি খারিজ করে ।

ওয়েব ডেস্ক ১৯ই এপ্রিল ২০১৯: সিপিএমের লোক বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর নিঃসন্দেহে বিজেপির বাড়বাড়ন্ত হয়েছে পশ্চিম বাংলায় । আর সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কলুষিত হচ্ছে বাঙালির রাজনীতি । বাংলার রাজনীতি শালীনতার  সীমা কখনোই ছাড়াইনি পূর্বে , তবে দিলীপ ঘোষ, সায়ন্তন বসুর আর সব শেষে যোগেশ ভার্সনের মতো পাবলিকের জন্য বিজেপির বর্ষীয়ান নেতারাই কোথায় মুখ লুকোবেন বুঝে উঠতে পারছেননা ।
প্রসঙ্গত , ২০১৭-য় হনুমান জয়ন্তী উপলক্ষে বীরভূমে অস্ত্র হাতে নিয়ে মিছিল বের করে গেরুয়া বাহিনী। সেই অস্ত্র মিছিলের বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়ায় তাঁর মাথা কেটে নেওয়ার ফতোয়া জারি করেন  যোগেশ ভার্সনে। বৃহস্পতিবার তাঁর একাধিক আবেদন খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট।আলিগড়ের বিজেপি যুব মোর্চা নেতা যোগেশ ভার্সনে। ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে হনুমান জয়ন্তী উপলক্ষে বীরভূমের অস্ত্র মিছিল নিয়ে মমতা কড়া হুঁশিয়ারিকে চ্যালেঞ্জ জানান যোগেশ। দাবি করেন, মমতার মাথা কেটে আনতে পারলে ১১ লক্ষ টাকা তিনি পুরস্কার দেবেন। এর পরই তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় একাধিক এফআরআই দায়ের হয়।যোগেশ মামলা-মোকদ্দমার মুখে পড়ে সুপ্রিম কোর্টের কাছে শাস্তি রদের আর্জি জানিয়েছিলেন। সেই আর্জিই এ দিন খারিজ করে দেয় সর্বোচ্চ আদালত। এ দিনের শুনানিতে তাঁর আইনজীবীকে তিরস্কার করে বিচারপতি দীপক গুপ্ত বলেন, “মাথা কাটার হুমকি দেওয়ার সাহস যখন রয়েছে, আইনি ব্যবস্থার মুখোমুখিও হতে হবে”।এ ছাড়া তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় দায়ের হওয়া একাধিক এফআরআইগুলিকেও একত্রিত করার আবেদন জানিয়েছিলেন যোগেশ। সেই আর্জিও  খারিজ করে দেন বিচারপতিরা।বিচারপতি গুপ্ত আরও বলেন, “একজন সাংবিধানিক পদাধিকারী ব্যক্তিকে হুমকি দিয়েছেন আপনি। তাঁর মাথার দাম ঘোষণা করেছেন। এর পরেও আমাদের কাছে সাহায্য চাইতে এসেছেন। এই ধরনের মানুষের আবেদনের শুনানি করি না আমরা”। এই অবস্থায় , বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটিতে বেকায়দায় ।

No comments:

Post a Comment

loading...