Monday, 1 April 2019

যেখানে কেন্দ্রীয় সরকার রিজার্ভ ব্যাংককে নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করতে চাইছে , "গরিমার" অক্ষুন্ন রাখার পক্ষে সওয়াল করলেন মমতা

ওয়েব ডেস্ক ১লা এপ্রিল  ২০১৯: রিজার্ভ ব্যাংকের  স্বাধীন ভাবে কাজ করার অধিকার থাকলেও বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকারের আমলে তারা স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারছে কি ? সঠিক উত্তর দেওয়ার জন্য কোনো পুরুষ্কার নেই । যেখানে কেন্দ্রীয় সরকারের কথা মতো না চলার জন্য রঘুরাম গোবিন্দ রাজন , অর্জিত প্যাটেলকে চলে যেতে হয়েছে সেখানে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী আজ রিজার্ভ ব্যাংকের জন্মদিন উপলক্ষে রিজার্ভ ব্যাংকের পাশেই দাঁড়ালেন ।প্রসঙ্গত রিজার্ভ ব্যাঙ্কের   জন্মদিনে সর্বস্তরের  কর্মীদের শুভেচ্ছা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  ।
পাশাপাশি তিনি বলেন গত কয়েকদিনে আমরা দেখেছি কীভাবে আরবিআইয়ের  গরিমা এবং মর্যাদা ক্ষুন্ন করা হয়েছে। এটা কখনোই কাম্য নয়। দেশের শীর্ষ ব্যাঙ্কে তার যে মর্যাদা পাওয়া উচিত তা দিতেই হবে। ১৯৩৫ সালের ১  এপ্রিল দেশের শীর্ষ ব্যাঙ্কের পথ চলা শুরু হয়। একেবারে শুরুতে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর বসতেন কলকাতার অফিসে। বছর দুয়েক বাদে গভর্নরের অফিস পাকাপাকি ভাবে মুম্বইতে  নিয়ে যাওয়া হয়। প্রাথমিকভাবে বেসরকারি সংস্থা হিসেবে পথ চলতে শুরু করা রিজার্ভ ব্যাঙ্ক স্বাধীনতার পর কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে আসে। তবে আর্থিক ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ নিজের মতো করে সিদ্ধান্ত নিতে পারে এই ব্যাঙ্ক। তিনি না বললেও রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা , মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী হলে রিজার্ভ ব্যাংকের ওপর কোনো অন্যায় আবদার বর্তমান ব্যাপসরকারের মতো যে চাপিয়ে দেবেনা , সেটা এখনই বলে দেওয়া যায় ।

No comments:

Post a Comment

loading...