Monday, 22 April 2019

মোদির ওপর আশীর্বাদের হাত এবার উত্তরপ্রদেশের মানুষ রাখবেনা বলে আত্মবিশ্বাসী মায়াবতী

ওয়েব ডেস্ক ২২শে এপ্রিল ২০১৯: যেই রাজ্য গতবার লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদিকে প্রধানমন্ত্রিত্বের পদে বসানোর জন্য নব্বই শতাংশ ভূমিকা নিয়েছিল সেই উত্তরপ্রদেশ এবার বিজেপিকে আশীর্বাদ করবে তো ? যোগী আদিত্যনাথের মুখ্যমন্ত্রী পদে উপস্থিতিতে , বিগত পাঁচ বছরে ধর্ষণের ঘটনা যেমন বেড়েছে উত্তর প্রদেশে , তেমনি গরু বাঁচানোর নাম করে মোবলিংচিঙের ঘটনাও কম ঘটেনি , তাই এবার উত্তরপ্রদেশের মানুষের আশীর্বাদ বিজেপি পাবে কি না সন্দেহ আছে ।
দুদে রাজনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত মায়াবতীর চোখ যে এই সব ব্যাপারগুলো এরোবেনা সেটা সবারই জানা । আর সেই জন্য চলতি নির্বাচনে মোদীকে প্রধানমন্ত্রীর কুর্সি থেকে সরাতে তৈরি উত্তর প্রদেশ। এমনটাই মনে করেন বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী। রাজনৈতিক দিক দিয়ে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই রাজ্য। মোদী নিজেও সেকথা মানেন। তাই বারবার তাঁকে বলতে শোনা গেছে, উত্তরপ্রদেশের ২২ কোটি মানুষ তাঁকে প্রধানমন্ত্রী করেছেন। বহুজন সমাজ পার্টি এক বিবৃতিতে বলছে, সেই মানুষগুলোই এখন তাঁকে প্রশ্ন করছেন, কেন তিনি তাঁদের সঙ্গে প্রবঞ্চনা করেছেন?
বিজেপি বিশেষ করে নরেন্দ্র মোদীর বোঝা উচিত, উত্তর প্রদেশের আম জনতা তাঁকে সরাতে পারেন। সেই প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। মোদী নির্বাচন ও রাজনীতিতে ফায়দা তুলতেই পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের তালিকায় নিজের জাত পরিচয় অন্তর্ভুক্ত করেছেন। দাবি মায়াবতীর।
বিএসপি নেত্রী বলেন, বহুজন সমাজ পার্টি, সমাজবাদী পার্টি ও আরএলডি রাজ্যে ২২ কোটি মানুষের মন কি বাত জেনেই জোট গড়েছে। এরফলে দেশব্যাপী মানুষ খুশি হয়েছেন। বিজেপির মধ্যে ক্ষমতা হারানোর আতঙ্ক স্পষ্ট। সবাই সেই হারের সম্ভাবনা এখনই বুঝতে পারছেন বলেও দাবি তাঁর।

No comments:

Post a Comment

loading...