Monday, 22 April 2019

বেফাঁস মন্তব্যের জন্য সর্বোচ্চ আদালতে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হলেন রাহুল গান্ধী, প্রমান করলেন তার জন্য দিল্লি অনেক দূর

ওয়েব ডেস্ক ২২শে এপ্রিল ২০১৯:উত্তরসূরি হিসেবে কংগ্রেসে বড় পদ পেলেও প্রধানমন্ত্রিত্বের জন্য রাহুলগান্ধীযে একেবারেই উপযোগী নয় সেটা আবার প্রমান পাওয়া গেল ।তার শিশু সুলভ কথা বার্তা , এতদিন রাজনীতিতে থেকেও কি বলতে হবে সেটাই বুঝতে না পারা একটাই প্রমান করে এখনো ক্ষতি পাথর হতে দেরি আছে রাহুল গান্ধীর ।প্রসঙ্গত রাফাল বিতর্কে নিজের মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইলেন রাহুল গান্ধী। নিজের মন্তব্যের জন্য তিনি অনুতপ্ত, এমনই জানিয়ে আদালতে নিজের জবাব দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি।
তাঁর জবাবে রাহুল জানিয়েছেন, “নির্বাচনী সভা করার সময়ে উত্তেজনার বশে ওই মন্তব্য করেছিলাম। বিরোধীরা আমার ওই মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করেছে। কখনওই এ কথা বলতে চাইনি যে সুপ্রিম কোর্টে বলেছে ‘চৌকিদার চোর।’ গোটা বিষয়টির জন্য আমি দুঃখিত।”
উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে রাফালের ‘চুরি যাওয়া’ নথিকে প্রামাণ্য বলে স্বীকৃতি দেয় আদালত। তার পরই বিজেপিকে এক হাত নেন রাহুল গান্ধী। তিনি বলেন, এত দিন দেশ বলছিল চৌকিদার চোর। সুপ্রিম কোর্টও এখন সেই কথাই বলছে। প্রমাণ হয়ে গেল চৌকিদারই চোর।এর পরেই কংগ্রেস সভাপতির বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করেন বিজেপি নেত্রী মীনাক্ষী লেখি। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে গত ১২ এপ্রিল শীর্ষ আদালতে যান তিনি। তিনি বলেন, আদালতকে জড়িয়ে রাহুলের মন্তব্য ফৌজদারি অপরাধের শামিল।সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতেই গত সোমবার রাহুলের সমালোচনা করে তাঁর জবাব তলব করে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন শীর্ষ আদালতের ডিভিশন বেঞ্চ। এ দিন সেই জবাবই নিয়ে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন রাহুল। 

No comments:

Post a Comment

loading...