Thursday, 4 April 2019

সিপিএমের বিরুদ্ধে একটি কথাও বলবেননা বলে অঙ্গীকার রাহুলের , প্রশ্ন উঠছে কেন তার এই সিপিএম প্রীতি ?

ওয়েব ডেস্ক ৪ঠা এপ্রিল ২০১৯: অন্য কিছুর  প্রীতি থেকেও রাহুলের সিপিএম প্রীতি একটু বেশি বলেই মনে হচ্ছে । মুখে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে যতই শ্রদ্ধা করুননা কেন সিপিএমের প্রতি তার যে একটা টান আছে সেটা উপেক্ষা করার কোনো জায়গা নেই ।তিনি ওয়ানাড়ের টিকিট নিয়ে বামেদের সঙ্গে টালমাটাল প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের রাহুল বলেন, “আমি জানি কেরালায় কংগ্রেস এবং সিপিএমের মধ্যে লড়াই চলছে। এ লড়াই চলবেও।

আমি বুঝতে পারছি যে আমার সিপিএমের ভাই-বোনেরা আমার সঙ্গে লড়বেন, আমাকে আক্রমণ করবেন, কিন্তু আমি গোটা প্রচারে ওঁদের বিরুদ্ধে কোনও কথা বলব না। আমার উদ্দেশ্য দক্ষিণ ভারতে ঐক্য ও শান্তির বার্তা পাঠানো।” বিদ্যজনেদের একাংশের বক্তব্য , রাহুল গান্ধী সিপিএমের বিরুদ্ধে কথা বলবেন কি করে ? হয় তার কাছে সেই ভাষার দক্ষতা নেই সিপিএমের বিরুদ্ধে কিছু বলার । নাহলে একটা টান অবশ্যই আছে । তবে রাহুল গান্ধীর জানা উচিত ৩৪ বছরের বাম আমলে কতই না কংগ্রেসি কর্মীদের খুন হতে হয়েছে এই সিপিএমের হাতে । প্রথম দিকে তো মমতা কগ্রেসেই ছিলেন তাই তার আরো বেশি করে জানা উচিত কি ভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যের মাথায় পাঁচবার আঘাত করা হয়েছিল , আর করেছিল এই সিপিএম । তবে যাইহোক রাহুল গান্ধী তার সিপিএম প্রীতি দেখাতে দেখাতে ওয়ানাড়ের ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টরের দফতরে মনোনয়ন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন । এর পর এআইসিসি প্রধান একটি খোলা গাড়িতে চড়ে বেরিয়ে পড়েন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন কেরালার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী উমেন চান্ডি এবং কেরালার বিধানসভার বিরোধী দলনেতা রমেশ চেন্নিতালা সহ রাজ্য কংগ্রেসের নেতারা। ওয়ানাড়ের রাস্তার দুধারে দলীয় সমর্থকরা পতাকা হাতে তাঁকে অভিবাদন জানান। রোড শোয়ের সময়ে রাহুল অনেক সমর্থকের সঙ্গে হাতও মেলান।

No comments:

Post a Comment

loading...