Monday, 13 May 2019

এক কোটি টাকা সমেত দিলীপ ঘোষের আপ্ত সহায়ক ধরা পড়লেন রেল পুলিশের হাতে

ওয়েব ডেস্ক ১৩ই মে ২০১৯: বিরোধীদের কাছ থেকে ক্রমাগত একটা অভিযোগ আসছিল , বিজেপি ভোটে জেতার জন্য টাকা ছড়াচ্ছে বাজারে । তাদের একটাই উদ্দেশ্য যেন তেন প্রকারে লোকসভা নির্বাচনে জেতা।এবার বিরোধীদের এই অভিযোগই সত্যির আকার নিল। প্রসঙ্গত রবিবার আসানসোল স্টেশনে এক কোটি টাকা সহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে রেলপুলিস। ধৃতদের নাম লক্ষ্মীকান্ত শাহ এবং গৌতম চ্যাটার্জি। লক্ষ্মীকান্ত ভিনরাজ্যের বাসিন্দা হলেও বারাসতের বাসিন্দা গৌতম চ্যাটার্জি রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের আপ্ত সহায়ক।
ধৃতদের জেরা করে এই পরিচয় জানতে পেরেছে রেলপুলিস। প্রাথমিক তদন্ত শেষে রেলপুলিসের দাবি, জেরায় লক্ষ্মীকান্ত স্বীকার করেছে, ষষ্ঠ দফার নির্বাচনের সময় ওই টাকা বিলি করতে তাদের দিয়েছিল বিজেপি। দিল্লি থেকেই ওই টাকা নিয়ে রাজ্যে আসছিল সে। রেলপুলিস আরও জানিয়েছে, রবিবার রাতে গোপন সূত্রে তারা খবর পায়, প্রচুর নগদ টাকা নিয়ে দিল্লি থেকে আসানসোল আসছে কয়েকজন।এরপরই সাদা পোশাকে জিআরপি এবং আরপিএফ কর্মীরা স্টেশন চত্বরে ফাঁদ পাতে। রবিবার বিকেল চারটে নাগাদ নীল রঙের ব্যাগ সহ আসানসোল স্টেশনের পাঁচ নম্বর প্ল্যাটফর্মে ওই দুজনের চলাফেরায় সন্দেহ হওয়ায় তাদের প্রথমে জেরা করে রেলপুলিস। সন্তোষজনক জবাব না পেয়ে ব্যাগে তল্লাশি করতেই টাকা উদ্ধার হয়। খবর দেওয়া হয় আয়কর দপ্তরকেও। পুলিস জানিয়েছে, জেরায় লক্ষ্মীকান্ত বিজেপির কাছে থেকে টাকা নিয়ে আসার করা বলার পর বিজেপির তরফে প্রথমে দাবি করা হয় তারা লক্ষ্মীকান্তকে চেনে না। পরে গৌতম চ্যাটার্জির পরিচয় জানার পরই তদন্তের মোড় অন্য দিকে ঘুরে যায়। সোমবার আদালতে তোলা হলে বিচারক গৌতম চ্যাটার্জি এবং লক্ষ্মীকান্ত শাহ্‌–কে চারদিনের জেল হেপাজত দিয়েছেন।    তবে এতো কিছু হয়ে যাচ্ছে বিজেপির তরফ থেকে থামবার কোনো লক্ষণই দেখা যাচ্ছেনা

No comments:

Post a Comment

loading...