Wednesday, 8 May 2019

সৌহার্দের অন্য নজির দেখা গেল মমতা বন্দ্যোপাধ্যের এই বাংলায় , অমিত শাহেরা দেখে শিখতে পারেন তো ।

ওয়েব ডেস্ক ৮ই মে ২০১৯: সারা দেশেই যখন অসহিষ্ণুতার বাতাবরণ তখন সৌহার্দের অন্য নজির এই বাংলাতে দেখা গেল । আর কেনই বা দেখা যাবেনা , সরকারটা তো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের । এখানে সব ধর্মাম্বলম্বী মানুষের সমান অধিকার দেওয়া হয় । সবারই নিজের মান সন্মান নিয়ে বেঁচে থাকার অধিকার আছে , আর সেই জন্য বসবাসের জন্য  ভারতের মধ্যে সবথেকে উপযুক্ত জায়গা বাংলাকেই মনে করেন বিদ্যজনেদের একাংশের । প্রসঙ্গত শুরু হয়েছে প্রবিত্র রমযান মাস। মসজিদে তারাবিহর নামায আদায় করতে আসা মুসল্লিদের মোটরবাইক আগলে রাখছেন ভিন্ন ধর্মাবলম্বী যুবক অমিত কুমার প্রসাদ।দেশের বিভিন্ন প্রান্তে অসহিষ্ণুতার পরিবেশ যখন সাধারণ মানুষের মধ্যে নানাবিধ সন্দেহ আর প্রশ্ন জাগিয়ে দিচ্ছে, তখন বীরভূমের রামপুরহাটের এই চিত্র ধর্মের গণ্ডি ছাড়িয়ে মানবিকতার বার্তাই দিচ্ছে।
 রামপুরহাট থানা থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে অবস্থিত জামে মসজিদ। গত ৫ বছর ধরেই রমযান মাসে মসজিদে তারাবিহর নামায আদায় করতে আসা মুসল্লিদের বাইক স্বেচ্ছায় পাহারা দিয়ে আসছেন অমিত। বেশ কয়েক বছর আগে তারাবিহর সময় মসজিদে আগত নামাযীদের সাইকেল ও মোটরসাইকেল চুরি হয়ে যেত। মোটরবাইক ও সাইকেল চুরির খবর জানতে পেরেই ওই সময়েই সহযোগিতার জন্য এগিয়ে এসেছিলেন রামপুরহাট বাজারপাড়ার বাসিন্দা পেশায় রেল কর্মী যুবক অমিত। তিনি মসজিদের ইমাম সহ মসজিদ পরিচালন কমিটির সদস্যদের সঙ্গে দেখা করে তারাবিহ নামাযের সময় মসজিদের বাইরে রাখা মোটরবাইক এবং সাইকেল আগলে রাখার দায়িত্ব নেন।অন্যদিকে মসজিদের ইমাম জাহিদুল ইসলাম বলেন,মসজিদে প্রায় ১৫০ থেকে ২০০জন মুসুল্লি আসেন। পবিত্র রমযান মাসে তারাবিহর নামাযে অংশগ্রহণকারীরা যেন সুষ্ঠভাবে নামায আদায় করতে পারেন, সেইজন্য অমিত কুমার প্রসাদ স্বেচ্ছায় নামাযিদের সাইকেল ও মোটরসাইকেল পাহারার দায়িত্ব নিয়েছেন। কোনও কিছুর বিনিময় ছাড়াই তিনি আন্তরিকতার সঙ্গে বেশ কয়েক বছর ধরেই এই কাজ করে যাচ্ছেন।’ এই ভারতেরই স্বপ্ন মহাত্মা গান্ধী দেখেছিলেন , বুঝতে কি পারছেন অমিত শাহেরা ?

No comments:

Post a Comment

loading...