Friday, 17 May 2019

সব বিরোধী দলের যেন একটাই মত, মমতাকে ছাড়া চলবেনা

ওয়েব ডেস্ক ১৭ই মে ২০১৯:আগামী দিনে দেশ চালাতে গেলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাদ দিয়ে কোনো ভাবেই যে সম্ভব নয় সেটা দেশের তাবড় তাবড় বিজেপি বিরোধী  নেতা নেত্রীরা বুঝে গেছেন । আর বুঝে গেছেন বলেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে এসে দাঁড়ালেন তারা । মমতা ব্যানার্জির পাশে দাঁড়িয়ে নির্বাচন কমিশন ও বিজেপি–কে তুলোধোনা করল কংগ্রেস, সপা, বসপা, টিডিপি, ডিএমকে, আরজেডি, এনসি, আপ‌-‌সহ বিরোধী দলগুলি। বাংলা ও তৃণমূলের পাশে দাঁড়ানোয় দেশের সব বিরোধী নেতা, নেত্রীদের ধন্যবাদ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

পরে সন্ধ্যায় কংগ্রেস, তেলুগু দেশম ও আপ নির্বাচন কমিশনে গিয়ে পশ্চিমবঙ্গ ও অন্যান্য কিছু বিষয় নিয়ে তাদের অভিযোগ জানিয়ে এসেছে। নজিরবিহীনভাবে সংবিধানের ৩২৪ ধারা প্রয়োগ করে রাজ্যে নির্বাচনী প্রচারের মেয়াদ কমিয়ে দেওয়াকে গণতন্ত্রের ‘কালো দাগ’‌ আখ্যা দিয়েছে কংগ্রেস।কংগ্রেস প্রশ্ন তুলেছে, কমিশনের নিরপেক্ষতা ও নির্ভয়ে কাজ করার ক্ষমতার ওপর মোদি-‌শাহ জুটি কি দখল নিয়েছে?‌ কমিশনকে পৃথক পৃথক ১১টি অভিযোগে মোদি ও শাহর আচরণ বিধিভঙ্গের প্রমাণ-‌সহ অভিযোগ জানিয়েছিল কংগ্রেস। কিন্তু, কমিশন কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। কংগ্রেস, বসপা, সপা, আপ নেতাদের অভিযোগ, ‌বাংলায় যেভাবে নির্ধারিত সময়ের ২০ ঘণ্টা আগেই প্রচার বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তাতে সংবিধানের ২৩৪ অনুচ্ছেদ এবং ১৪ ও ২১ নং ধারাগুলির অবমাননা করা হয়েছে। মনে হচ্ছে, কমিশনের এই নির্দেশ নরেন্দ্র মোদিকে দেওয়া উপহার, যাতে তিনি আজ সন্ধ্যায় মথুরাপুর ও দমদমের নির্বাচনী সভা করতে পারেন। তারপর নিষেধ চালু হবে। কলকাতায় অমিত শাহর উপস্থিতিতে যেভাবে গুন্ডাগিরি হয়েছে তারপর দোষীদের শাস্তি দেওয়ার পরিবর্তে কমিশন যেন বলছে তারা মূক ও বধির।সপা প্রধান অখিলেশ যাদব টুইটে লিখেছেন,‘‌বাংলায় প্রচারের মেয়াদ কমিয়ে দেওয়া গণতান্ত্রিক নির্বাচনী পদ্ধতির পরিপন্থী। যাঁরা নিজেদের জয়ের লক্ষ্যে অগণতান্ত্রিক ভাবে দেশের সব প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে চলেছেন তাঁদের বিরুদ্ধে মমতাজির লড়াইকে পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছি।’‌আর চিরকালের মতো আজও চন্দ্রবাবু নাইডু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে দাঁড়িয়েছেন । তিনি বলেন ‘‌বিজেপি ও অমিত শাহর অঙ্গুলি হেলনে নির্বাচন কমিশনকে কাজ করতে দেখে খারাপ লাগছে। তৃণমূলের নিখুঁত অভিযোগ সম্পর্কে চুপ থাকল কমিশন।’‌

No comments:

Post a Comment

loading...