Friday, 17 May 2019

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘সহজ পাঠ’, দিব্বি বিদ্যাসাগরের বলে চালিয়ে দিলেন বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ,সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসা হাসি

ওয়েব ডেস্ক ১৭ই মে ২০১৯:বাংলা সাহিত্য সম্বন্ধ্যে সাধারণ জ্ঞানটুকুও নেই যেই নেতাদের তারা কি করে দেশ চালাবে বলতে পারেন ? এই প্রশ্নটা আসতে বাধ্য আর এসেছেও । এখন বিজেপি নেতাদের মুখ খোলা মানেই কোনো হাস্যকর পরিস্তিতি সৃষ্টি হওয়া , সে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিল্ব কুমার দেবই হোক বা দিলীপ ঘোষ , ব্যাপারটা এখন একই হয়ে গিয়েছে ।
 মুখ্যমন্ত্রী এই কয়েক দিন আগেই বলেছিলেন বিজেপি নেতারা অশিক্ষিত, তিনি যে ভুল কিছুই বলেননি সেটার প্রমান খুব ভালো ভাবেই পাওয়া গেল । প্রসঙ্গত রবীন্দ্রনাথের ‘সহজপাঠ’কে বিদ্যাসাগরের বলে দিব্যি চালিয়ে দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর বিজেপি নেতার এই মন্তব্য ঘিরে তীব্র বিতর্ক শুরু হয়েছে।এক নির্বাচনী জনসভায় এসে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা ‘সহজপাঠ’ কে বিদ্যাসাগরের লেখা বলে ভুল তথ্য দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার ইসলামপুরের প্রচার সেরে শিলিগুড়িতে এসে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙ্গার প্রসঙ্গে একথা বলেন তিনি। এই রকম মন্তব্য করেও ভুল স্বীকার করেননি বিজেপি সভাপতি। বরং দিলীপ ঘোষ মূর্তি ভাঙার সম্পুর্ন দায় তৃণমূলের উপর চাপিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে রাজনীতি করার অভিযোগ করেন।সে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “নিজেরা মূর্তি ভেঙে নিজেরাই কান্নাকাটি করছে তৃণমূল। যার জন্য বিদ্যাসাগর বিখ্যাত ‘সহজ পাঠ’ আমরা ছোটবেলা থেকেই পড়েছি। কিন্তু সিপিএম তা স্কুল থেকে সরানোর পর তৃণমূল কি আবার তা চালু করেছে?” ভাষণ দিতে গেলে বা রাজনীতির সাথে অতপ্রোত ভাবে জড়িত থাকতে গেলে একটু পড়াশোনা করে আসতে হয় । ছোট কালে ঠিক মতো না করলেও বড় হলে সেটা করতেই হবে , এমনই অভিমত নেটিজেনদের একাংশের । বিলোপ বাবু শুনছেনতো ?

No comments:

Post a Comment

loading...