Wednesday, 1 May 2019

সিপিএম বাংলার কতটা ক্ষতি করে দিয়ে গেছে, প্রমান পাওয়া গেল সূর্যকান্ত মিশ্রর একটি টুইটার পোষ্টে

ওয়েব ডেস্ক ১লা মে ২০১৯:সিপিএম বাংলার কত বড়  ক্ষতি করে দিয়েগেছে প্রমান আছে ভুরি ভুরি , এবার নব তম সংযোজন একটা "টুইট" যা নিঃসন্দেহে প্রমান করে দেবে , এক একটা প্রজন্ম কিভাবে নষ্ট করেছে এই সিপিএম । বিদ্যজনেদের একাংশের এটাই মত। প্রসঙ্গত সিপিআইএম সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রর একটি টুইটার পোষ্টে ইংরেজি ভুল নিয়ে সোস্যাল মিডিয়ায় হাসাহাসি চলছে। এই নিয়ে নিজের ফেসবুকে লিখেছেন শিল্পী কবির সুমনও। শিল্পী লিখেছেন,’কতটা মানসিক দীনতা, শারীরিক মানসিক ক্লীবত্ব, কতটা লাথখোর হলে একটা দেখতে-পুরুষ প্রাণী এসব লিখে টুইট করতে পারে।ঐ প্রাণীটা আর ওর দলের হাতে লাল নিশান অনেক দিন আগে বাল-নিশান গেরুয়া নিশান হয়ে গেছে।
মমতার কাছে জুতো- খাওয়া পরাজয় ঐ প্রাণীদের কোনওদিন হজম হবে না।রামবাম আবার হারবে।
এই প্রাণীটার কথা থেকে বোঝা যায় ও এবং ওর দল কোন্ নর্দমার ছুঁচো। সি পি আই এম এই নালায় সাঁতরাচ্ছে, নোংরা পাঁক খাচ্ছে দেখলে খারাপই লাগে।বেচারিরা।’
এদিকে অর্ণব সাহা নামে এক অধ্যাপকের পোষ্ট শেয়ার করেছেন কবির সুমন। অর্ণব বাবু উপহাস করে লিখেছেন,’এই সূর্যকান্ত মিশ্র হল সিপিএমের গোঁড়া দক্ষিণপন্থী এলিটিস্ট অংশের মুখপাত্র। এরা মমতার ইংরেজি উচ্চারণ নিয়ে ভুল ধরে। খিল্লি করে। বাংলার খেটে-খাওয়া মানুষের বৃহদংশ ভুল ইংরেজি বলে। এমনকী ডিগ্রিধারী সো-কল্ড ‘শিক্ষিত’-রাও বহু ভুল ইংরেজি লেখেন ও উচ্চারণ করেন। বাংলার আমজনতার নেত্রীকে নিয়ে এই বিকৃত খিল্লি থেকেই বোঝা যায়, সাধারণ মানুষের থেকে কতোদূর বিচ্ছিন্ন এই ভণ্ড, নিম্নমেধার, অর্ধশিক্ষিত সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটগুলো। সূর্যকান্তর মতো আপাদমস্তক নিম্নমেধার হার্মাদরাই এই পার্টির সম্পদ। সাধারণ মানুষের ভাষা থেকে শত-হস্ত দূরে থেকে, মানুষের লড়াই সম্ভব?’
ওই অধ্যাপক সূর্যকান্তের ইংরেজি জ্ঞান নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। অর্ণব সাহা লিখেছেন,বায় দ্য ওয়ে, সূর্যকান্তর নিজের ইংরেজি জ্ঞান কদ্দূর?উনি কি নিজে নিখুঁত ইংরেজি জানেন? সাবাশ কমরেড! আগামী ২০ বছরেও আপনারা ক্ষমতায় ফিরবেন না। লাল সেলাম!’

No comments:

Post a Comment

loading...