Monday, 3 June 2019

জলের সমস্যার কথা বলতেই বিজেপি বিধায়ক দিলেন মহিলার পেতে লাথি

ওয়েব ডেস্ক ৩রা  জুন ২০১৯: বিজেপি নেতারা আদেও কি মহিলাদের সন্মান দিতে পারে ? এখন এই কথাটাই ট্রোলড হচ্ছে । কারণ যেভাবে নির্মম ভাবে বিজেপির এই বিধায়ক এক মহিলাকে লাথি মারলেন তাতে কোনো সুস্থ মস্তিষ্কের লোক করে কিনা সন্দেহ আছে ।  প্রসঙ্গত এলাকায় জলের সমস্যা। এই অভিযোগ জানানো হয়েছিল বিজেপি বিধায়ককে। এটুকুই এই মহিলার অপরাধ। এই বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদও করেছিলেন তিনি। আসলে জনগণের প্রতিনিধি হয়ে এই সমস্যা তুলে ধরেছিলেন। পরিবর্তে বিজেপি বিধায়কের কাছ থেকে জুটল লাথি ও ঘুসি।
আর যাঁকে মারলেন এই বিজেপি বিধায়ক তিনি এনসিপি’‌র মহিলা নেত্রী। ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হতেই তৈরি হয় বিতর্ক। রাজ্য তথা জাতীয় রাজনীতিতেও এই খবর এখন জায়গা করে নিয়েছে। কারণ মহিলা নেত্রীকেই যদি লাথি ও ঘুসি খেতে হয়, তাহলে সাধারণ মানুষ সমস্যা ‌বললে না জানি কি হত!‌ গুজরাটের এই বিজেপি বিধায়কের নাম বলরাম থাওয়ানি। আর এনসিপি নেত্রীর নাম নীতু তেজওয়ানি। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ দলের নেত্রীর সঙ্গে এহেন আচরণ শুধু বিরলই নয়, অমানবিক বলেও মনে করছেন অনেকে। এই ঘটনায় বিজেপি বিধায়কের নামে থানায় অভিযোগও দায়ের হয়েছে।
গোটা ঘটনাটি ক্যামেরায় ধরা পড়ে এবং তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। স্থানীয় সূত্রে খবর, রবিবার এলাকায় জলের সমস্যার জন্য রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করছিলেন এনসিপি নেত্রী নীতু। জলের পাইপলাইনের দাবিতে বিক্ষোভ দেখানো চলছিল। এমন সময় বিজেপি বিধায়ক বলরাম থাওয়ানি তাঁর অফিস থেকে বেরিয়ে রাস্তায় প্রতিবাদরত নেত্রী–সহ কর্মী–সমর্থকদের ক্রমাগত লাথি–ঘুসি মারতে শুরু করে। গোটা ঘটনাটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে।
এই বিষয়ে এনসিপি নেত্রী নীতু তেজওয়ানি বলেন, ‘‌আমি বিধায়কের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলাম জলের সমস্যা নিয়ে। তখন তিনি আমার কথা শুনে কিছু উত্তর না দিয়ে চড় মারেন ও লাথি মারেন। আমার স্বামী এই ঘটনা দেখতে পেয়ে আমাকে উদ্ধার করেছে। তারপরেই বিধায়ক এবং তাঁর দলবল আমাকে ও বাকি আন্দোলনরত কর্মীদের লাথি, ঘুসি মারতে থাকেন। আমি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজিকে জিজ্ঞাসা করব, বিজেপি শাসনে মহিলাদের নিরাপত্তা কতটা?‌’‌ 

No comments:

Post a Comment

loading...