Monday, 3 June 2019

সিপিএমের ভোটেই আজ বিজেপির উত্থান বাংলায়, প্রশ্ন উঠছে সিপিএমের কথা কতটা গম্ভীর ভাবে নেওয়া উচিত মানুষের

ওয়েব ডেস্ক ৩রা  জুন ২০১৯: প্রতিটা মানুষেরই জানা তৃণমূল কংগ্রেস একবার এনডিএ তে যোগ দিয়েছিল , আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হয়েছিলেন রেল মন্ত্রী ।  ঠিক সেই সময় , আলিমুদ্দিন তাদের ক্যাডার বাহিনীর মাধ্যমে প্রচার করতে থাকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটা সাম্প্রদায়িক দলের সঙ্গে রয়েছেন । উদেশ্য ছিল একটাই মুসলিম ভোট সিপিএমের দিকে নিয়ে আসা । এর মধ্যে নিজেদের নীতি গত বোধটাও জনসমক্ষে দারুন ভাবে তুলে ধরেছিল । স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন আসে আদেওকি কোনো নীতি বোধ এই কমিউনিস্টদের আছে ? এটা তো তাদেরই কথা ' যখন যেমন তখন তেমন '। মানে যখন পরিস্থিতি যেই দিকে যাবে ঠিক সেই পথেই তারা অগ্রসর হবে ।
যার জন্য একবার ভোট ব্যাঙ্ক অটুট রাখতে তারা কম্পিউটারের বিরোধিতা করেছিল । মুখের মার্কেটিংটা ছিল দুর্দান্ত ।সেই সময় মানুষকে বোকা বানিয়ে তাদের ভোট গুলো হাতিয়েছিল সিপিএম । রাজত্ব করেছিল এই বাংলায় আরও একটা বিধানসভার ভোট অবধি ।আবার সেই কম্পিউটারকে ফিরিয়ে আনার জন্য আরো একটা আন্দোলন, আবার মানুষের ভোট নিজেদের দিকে টেনে আনার কৌশল , এবং এতেও তারা সফল  ।জনগণের মনে আছে বিরোধী দলনেতা সূর্য্যকান্ত মিশ্র একবার বলেছিলেন তৃণমূল সরকারের উদ্দেশ্যে , যে এই সরকারের কোনো 'ভিশন' নেই ,   তাহলে প্রথমবার যখন কম্পিউটার আসার কথা ছিল বাংলায় তখন তারা এর বিরোধিতা করেছিল কেন ? কেন তাদের সেই 'ভিশন' ছিল না? যে, এই কম্পিউটেরই সারা বিশ্বে একটা সময় রাজত্ব করবে । এসবই ছিল কমিউনিস্টদের  ভোট পাওয়ার রাজনীতি ।আজ সিপিএম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ওপর দোষ চাপায় , তার জন্যই নাকি বিজেপি পশ্চিমবাংলায় ঢুকেছে , কিন্তু আলিমুদ্দিন কি করে ভুলতে পারে জ্যোতি বসু , লাল কৃষ্ণ আডভানিদের সাথে মঞ্চে হাতে হাত রেখে নিজের উল্লাস জ্ঞাপন করেছিলেন । তাহলে সেই সময় থেকেই বিজেপির উত্থান এই বাংলায় ,বলাটা কি খুব ভুল হবে ? একদমই না । একদিক থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা করে বেড়ান এই সিপিএমের ক্যাডাররা যে তিনি অতীতে  বিজেপির হাত ধরে ছিলেন বলে , কিন্তু আজ নিজেদের ভোট ব্যাঙ্কের সম্পূর্ণ ভোটই তারা বিজেপিকে দিয়ে তাদের প্রাথীদের এই লোকসভা ভোটে জয়ী করলেন । তাহলে এখন সিপিএমের কাছে কি বিজেপি সাম্প্রদায়িক দল নয়? নিজেরা (সিপিএমরা) করলে লীলা আর অন্য কেউ সেই কাজ করলে ,কি ? একটু বুঝিয়ে দেবেন কমিউনিস্টরা ? আসলে এদের নীতিই হচ্ছে কি করে মানুষের ভোট মিথ্যে কথা বলে আদায় করা যায় ।  মানুষের কি উচিত সিপিএমের ভন্ড লোকেদের সাথে কথা বলা ? এই প্রশ্নের উত্তরে কোনো পুরস্কার নেই । 

No comments:

Post a Comment

loading...