Monday, 3 June 2019

মধুচন্দ্রিমা করার সুযোগও পেলেন না মনিরুল ইসলাম, প্রবল সমালোচনায় বিদ্ধ হয়ে ইস্তফা দিতে চাইলেন বিজেপির থেকে

ওয়েব ডেস্ক ৩রা  জুন ২০১৯: এতো আশা নিয়ে বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন সুযোগ সন্ধানী মনিরুল ইসলাম , কিন্তু দেখা যাচ্ছে শেষ রক্ষা করতে হিমশিম খাচ্ছেন তিনি । বিজেপির অন্দরেই তাকে কেউই সহ্য করতে পারছেননা । অধিকাংশ বিজেপি নেতারা তার এই অন্তর্ভুক্তি ভালো ভাবে নিচ্ছেনা ।এতে অতিষ্ট হয়ে মনিরুল ইসলাম  পদত্যাগ করার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন মুকুল রায়ের কাছে ।মুকুল রায় জানিয়েছেন তিনি এ প্রসঙ্গে দলে আলোচনা করবেন।
প্রসঙ্গত ২৯ মে (বুধবার) তৃণমূল ছেড়ে মুকুল রায়ের হাত ধরে পদ্ম পতাকা হাতে তুলে নিয়েছিলেন মনিরুল ইসলাম। কিন্তু মনিরুলের পদ্ম শিবিরে যোগদানে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয় দলের অন্দরে এবং বাইরে। মনিরুলের মতো ‘তৃনমূলী সন্ত্রাসের মুখ”কে দলে নেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন বিজেপির বহু নেতা। এ প্রসঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়াতেও জোর চর্চা শুরু হয়। বিজেপি যদি ‘তৃণমূলী সন্ত্রাসের মুখ’কেই দলে নেয় তাহলে এ রাজ্যে কী করে তারা বিশ্বাসযোগ্য বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি হয়ে উঠবে তা নিয় প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। জানা যাচ্ছে তাঁকে নিয়ে এই বিতর্কের কারণেই ইস্তফার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন মনিরুল।বঙ্গ রাজনীতিতে চেনা নাম মনিরুল ইসলাম। তবে সাংবাদ মাধ্যমে অধিকাংশ সময়েই তাঁর মুখ দেখা গিয়েছে লাল বৃত্তের অন্দরে। ফরোয়ার্ড ব্লক কর্মী হিসাবে রাজনৈতিক জীবন শুরু করলেও রাজ্যে পালা বদলের কালে সময় বুঝে তৃণমূলে নাম লেখায় মনিরুল। ২০১১ এবং ২০১৬ সালে পরপর দু’বার লাভপুর কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের টিকিটে বিধায়ক নির্বাচিত হন তিনি। এরপর উনিশের লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপির ব্যাপক হাওয়া দেখে সম্প্রতি জার্সি বদল করে পদ্ম পতাকা হাতে তুলে নিয়েছেন মনিরুল। এই প্রসঙ্গে বিজেপির এক বর্ষীয়ান নেতা বলেন, “কোনও কিছু বিবেচনা না করেই যেভাবে দলে নেওয়া হচ্ছে তা মোটেই ঠিক না। যোগদানকারীর অতীত বিচার না করেই এমন অন্তর্ভুক্তি বিজেপির ভাবমূর্তি নষ্ট করছে।

No comments:

Post a Comment

loading...