Sunday, 2 June 2019

সিপিএমের ভোট বিজেপিতে পড়ার পরেও তৃণমূলের ভোট ২৫ শতাংশ বেড়েছে মুর্শিদাবাদে

ওয়েব ডেস্ক ২রা  জুন ২০১৯: মুর্শিদাবাদের মানুষ যে তৃণমূলের দিকেই ঝুঁকছে সেটা আরো একবার প্রমাণিত হল ।সারা বাংলায় বিজেপি যেই  মার্কেটিং করছে যে তৃণমূলের অবস্থা ভালো নয় সেটা মুর্শিদাবাদের ফলাফল দেখলে মনে হবে না । এখানেই আসল চিত্রটা উঠে আসছে ।  যার পরিণতি মুর্শিদাবাদ ও জঙ্গিপুর তৃণমূলের দখল। আর বহরমপুরে তৃণমূল হারলেও, অধীর চৌধুরির ভোট কমিয়ে এনেছে। তবে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা সিপিএমের। বহরমপুরে সিপিএম অধীরকে ভোট দিয়ে জেতালেও, মুর্শিদাবাদ ও জঙ্গিপুরে তাদের ভোট বিজেপি–তে গেছে। যদিও ওই দুই কেন্দ্রে সিপিএমের প্রার্থী ছিল। এবং দেখা যাচ্ছে, মুর্শিদাবাদ ও জঙ্গিপুরে দ্বিতীয় স্থানে বিজেপি। কংগ্রেস তৃতীয়, সিপিএম চতুর্থ।
জঙ্গিপুরে ২০১৪–তে তৃণমূল পেয়েছিল ১৮।৫৩ শতাংশ। এবার পেয়েছে ৪৩।৫২ শতাংশ। তৃণমূলের ভোট বেড়েছে ২৫ শতাংশ। বিজেপি ২০১৪–তে পেয়েছিল ৮।৬৪ এবার ১৯।৭৮ শতাংশ। ১১ শতাংশ ভোট বেড়েছে বিজেপি–র। সিপিএম ২০১৪–তে পেয়েছিল ৩৩।৫ শতাংশ, এবার ৭।৩৮ শতাংশ। সিপিএমের ২৬ শতাংশ ভোট কমেছে। আর কংগ্রেস ২০১৪–তে পেয়েছিল ৩৩।৭৮ এবার ১৯।৭৮ শতাংশ, কমেছে ১৪ শতাংশ।
মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রে ২০১৪–‌তে জয়ী সিপিএম পেয়েছিল ৩৩।১৫, এবার ১২।৫৬ শতাংশ। কমেছে ২১ শতাংশ। কংগ্রেস পেয়েছিল ৩১।৭২ এবার ২৬।২৬ শতাংশ। কমেছে ৫ শতাংশ। বিজেপি–র প্রাপ্ত ছিল ৭।৮৪ এবার ১৭।২২ শতাংশ, বেড়েছে ১০।‌২২ শতাংশ। তৃণমূল পেয়েছিল ২২।৪৪ শতাংশ। এবারে প্রাপ্ত ৪২ শতাংশ। তৃণমূলের বেড়েছে ২০ শতাংশ ভোট। আর নদিয়ার সীমান্ত বিধানসভা করিমপুরে তৃণমূল প্রথম হলেও, বিজেপি দ্বিতীয়। অথচ এই করিমপুর একদা ছিল সিপিএমের ঘাঁটি।
বহরমপুরে গত লোকসভায় তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ছিল ১৯।৬৫ শতাংশ, এবার পেয়েছে, ৩৯।৬৯ শতাংশ। অর্থাৎ বেড়েছে ২০ শতাংশ। গতবার অধীর পেয়েছিলেন ৫০।৫৩ শতাংশ। জয়ী হয়েছিলেন ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৫৬৭ ভোটে। এবার অধীর পেয়েছেন ৪৫।৯৬ শতাংশ, কমেছে ৫ শতাংশ। আর জয়ের মার্জিন হল ৮০ হাজার ৬৯৬। বিজেপির ছিল ৭।৭ শতাংশ, এবার ১১।১২ শতাংশ। বেড়েছে ৪ শতাংশ মতো।  

No comments:

Post a Comment

loading...