Thursday, 27 June 2019

মমতার মন্তব্য যে বিকৃত করেছে মিডিয়াই , বিধাসভায় জানিয়ে দিল তৃণমূল

ওয়েব ডেস্ক ২৭শে  জুন ২০১৯: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে যারা কাছ থেকে চেনেন তারা খুব ভালোই জানেন তিনি নিজের একার ক্ষমতায় অনেক অসাধ্য সাধনই করতে পারেন  । কারুর সাহায্যের তার প্রয়োজন পড়েনা  । কোনো এক অজ্ঞাত কারণে কংগ্রেসের আব্দুল মান্নান আর সুজন চক্রবর্তী মনে হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেস ও সিপিএমের কাছে সাহায্য চাইছে বিজেপি তাড়ানোর জন্য । এটা যে সম্পূর্ণ মিথ্যে , আর এর মধ্যে মিডিয়ার একাংশের যে ভুল ব্যাখ্যা রয়েছে সেটা তৃণমূলের তরফ থেকে বুঝিয়ে দেওয়া হল ।প্রসঙ্গত বাম-কংগ্রেস জোট নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য বিকৃত করার অভিযোগে একটি সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে প্রিভিলেজ মোশন আনার কথা ঘোষণা করলেন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

সংবাদমাধ্যমে খবর হয়েছে, বাংলায় বিজেপিকে রুখতে বাম-কংগ্রেসকে পাশে চেয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার বিধানসভার অধিবেশনে মমতা বলেন, ‘আমাদের এখন জয়েন্টলি আসা দরকার।’ সিপিএম যে তাদের সব ভোট নিয়ন্ত্রিত ভাবে বিজেপিতে পাঠায়নি, এমন কথাও এদিন বলেন মুখ্যমন্ত্রী। বাম-কংগ্রেস অবশ্য স্পষ্ট করে দিয়েছে, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সমর্থন দিলেও বিধানসভার অন্দরে তৃণমূলের সঙ্গে কক্ষ-সমন্বয়ে রাজি নয় তারা।ই নিয়ে তীব্র গণ্ডগোল বাঁধে বৃহস্পতিবার। পরিষদীয় প্রতিমন্ত্রী তাপস রায় অভিযোগ করেন, কংগ্রেস-বাম জোটের কথা বলা হয়নি। বলা হয়েছে সামাজিক ভাবে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কথা। সংবাদমাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যকে বিকৃত করা হয়েছে। বিকৃত মন্তব্যের ভিত্তিতেই সাংবাদিক বৈঠক করে বামেরা। এই অভিযোগ অস্বীকার করে প্রতিবাদ জানাতে থাকেন বাম বিধায়করা। তাঁরা এ নিয়ে আলোচনার অনুমতি চাইলে অধ্যক্ষ সেই অনুমতি না-দেওয়ায় ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বাম বিধায়করা। যেটা তাদের ধর্ম । তারা চেষ্টা করেন মিছিল করে লোক জমায়েত করা , কিন্তু তেমন সাড়া তাদের ডাকে কেউই দেয়নি ।

No comments:

Post a Comment

loading...