Friday, 19 July 2019

এক দিকে গরু বাঁচানোর জন্য গোরক্ষা বাহিনী , অন্য দিকে গরুর মাংসের রপ্তানিতে শীর্ষ স্থান দখল মোদির আমলেই

ওয়েব ডেস্ক ১৯ই জুলাই  ২০১৯: গরু বাঁচাতে গোরক্ষা কমিটি তৈরী করা হয়েছে যোগী আদিত্যনাথ , অমিত শাহ এবং নরেন্দ্র মোদির জমানায় ।এবার সেই গরুকেই মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছেন তারা ।  কি ভাবে ? একটু অন্য ভাবে । প্রথমত চীন বিশ্বের বৃহৎ গরুর মাংসের আমদানিকারী দেশ আর সে দেশে বীফ রপ্তানি করার জন্য নতুন চুক্তিতে সই করেছে মোদী সরকার ।  এখানেই শেষ নয় মোদী জামানায় রপ্তানিকারি পশুদের পা ও মুখের বিশেষ রোগের চিকিৎসার জন্য ১৩ হাজার কোটি টাকা অনুমোদন করেছেন।
বিগত দিনে এই রোগের জন্যই চীন ভারত থেকে গো-মাংস আমদানি বন্ধ করে দিয়েছিল। তাই সেই রপ্তানি পুনরায় চালু করার জন্য এই উদ্যোগ নিয়েছে মোদী সরকার। বিশ্বের সব থেকে বড় গোরুর মাংস আমদানীকারী দেশ চীনের সঙ্গে এই নিয়ে চুক্তি করল ভারত। কম দামে ভাল মাংসের সুবাদে সারা এশিয়াতে ভারতীয় গোরুর মাংসের চাহিদা শীর্ষে। বর্তমানে এই রোগের কারণে মাংস রপ্তানিতে পিছিয়ে পরেছে ইউরোপ। ভারতে বিদেশী মুদ্রা আমদানীর অন্যতম উপায় গোরুর মাংস রপ্তানী।

পশুচিকিৎসকদের মতে, খুব শীঘ্রই তেলেঙ্গানা ও অন্ধ্রপ্রদেশকে এই রোগ মুক্ত অঞ্চল বলে ঘোষনা করা হবে। যে সব দেশগুলিতে এই রোগের জন্য মাংস রপ্তানি বন্ধ ছিল সেখানে আবার রপ্তানি শুরু কপ্রা যেতে পারে বলে সূত্রের খবর। সারা পৃথিবীতে যে পরিমাণ গরু রপ্তানি হয় তার শীর্ষে ভারত। সূত্র থেকে জানা যায়, গেরুয়া সরকারের আমলেই সবথেকে বেশি অনৈতিকভাবে গরু পাচার হয়েছে ভারত থেকে। আর এখানে গরু কাটার বা মেরে ফেলার সন্দেহে মবলিনচিঙের
মতো ঘৃণ্য কাজ হয়ে চলেছে ।

No comments:

Post a comment

loading...