Monday, 5 August 2019

যারা বন্যায় বিধস্ত তাদেরকেই অসমের বিজেপি সরকার নাগরিকপঞ্জী বিষয়ক 'নোটিশ' পাঠাল

ওয়েব ডেস্ক ৫ই অগাস্ট  ২০১৯:বন্যার থেকে সাময়িক স্বস্তি পেলেও অসমের বিজেপি সরকারের থেকে এখনো স্বস্তি পাচ্ছেনা অসমের বাংলাভাষী মানুষজন । বন্যায় যারা সবই হারিয়েছে তারা অত্যন্ত খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন তবুও অসম সরকার তাদের ভারতীয় নাগরিক হওয়ার প্রমাণ দিতে বলেছে যার জন্য তাদের জীবন ওষ্ঠাগত।নাগরিকপঞ্জিতে নাম পুনরায় যাচাই করার জন্য বাসিন্দাদের নোটিস পাঠিয়েছে অসম সরকার । আর এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই আতঙ্কের বাতাবরণ তৈরি হয়েছে।
এই যাচাই পর্বে সেইসব কাগজপত্র নিয়ে আসতে বলা হয়েছে বাসিন্দাদের, যা প্রমাণ করবে তাঁরা ১৯৭১ সালের মার্চের আগে থেকেই অসমে রয়েছেন। জাতীয় নাগরিকপঞ্জিতে নাম থাকার জন্য ১৯৭১ সালের মার্চকেই সময়কাল হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে।
এই আতঙ্কের পরিবেশে পড়ে ৪০ বছরের বাসিন্দা মুখতার আলি বলেন, ‘‌আমরা কী করব বুঝতে পারছি না। গত বছর খসড়া তালিকা থেকে আমরা বাদ পড়েছিলাম। তারপর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করি। প্রায় ১২ বার শুনানির জন্য গিয়েছি। আমার কাছে আর কোনও কাগজপত্র নেই। টাকাও নেই।’‌ এদিকে ফের রবিবার নোটিস দেওয়া হয়েছে মুখতার আলিকে। বুধবারের মধ্যে হাজিরা দিতে হবে। কিন্তু তাঁর কথায়, ‘‌আমাকে ওখানে যেতে অন্তত ২০ হাজার টাকা দরকার। কিন্তু আমার কাছে ২০০ টাকাও নেই।’‌ এসব করে কোনো লাভ আছে কি না ? এই নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায় , এখন একটাই প্রশ্ন সবার বিজেপি সরকার ঠিক কি করতে চাইছে অসমে ? নাগরিক পঞ্জির নাম করে ।

No comments:

Post a Comment

loading...