Sunday, 11 August 2019

তৃণমূলের নেতাদের গতিবিধির ওপরেও এবার নজর প্রশান্ত কিশোরের

ওয়েব ডেস্ক ১১ই অগাস্ট  ২০১৯: ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের মস্তিস্ক প্রসূত "দিদিকে বলো" অভাবনীয় সাফল্যের পর এবার গ্রামে গঞ্জে তৃণমূল নেতাদের জনসংযোগের জন্য যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । বলা বাহুল্য এটাও প্রশান্ত কিশোরের মাথা থেকেই এসেছে । এখানেই শেষ নয় প্রশান্ত কিশোরের টিম প্রতিটা গ্রামে যেখানে তৃণমূলের নেতা মন্ত্রীরা যাচ্ছে সেখানে গ্রামের মানুষের কি অভিযোগ তা নিজেদের নোট বইতে নথিভুক্ত করছেন। এ বিষয়ে প্রশান্ত কিশোর এবং তার টিম তীক্ষ্ণ নজর রাখছে ।
 প্রসঙ্গত, ২৯ জুলাই তৃণমূল সুপ্রিমো ‘দিদিকে বলো’ জনগণের কাছে পৌঁছাতে এবং দলের অন্দরের বাঁধন পোক্ত করতে ‘দিদি কে বলো’ প্রচার শুরু করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। সেই অনুষ্ঠানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আগামী ১০০ দিনের মধ্যে আমাদের দলের ১০০০ জনপ্রতিনিধি এবং পদাধিকারী ১০ হাজারেরও বেশি গ্রামে গিয়ে স্থানীয় মানুষদের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। তাঁদের অভাব-অভিযোগের কথা শুনবেন এবং সেই গ্রামে রাত কাটাবেন। তাহলে সরাসরি অনেক পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করা সম্ভব হবে”। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তৃণমূলেরই এক নেতা বলেন, “আমাদের দলের নির্দেশ ছিল গ্রাম পরিদর্শন করার সময় হয় ভিডিও রেকর্ড করতে কিংবা সোশাল মিডিয়াতে লাইভ করতে হবে”। রাজনৈতিক মহলের অবশ্য মত বিধানসভা ভোটের আগে জনগণের মধ্যে তৃণমূলে আস্থা ফেরানোর লক্ষ্যে সম্পূর্ণ কৌশলই প্রশান্ত কিশোরের মস্তিষ্কপ্রসূত। যে সব জায়গায় যারা তৃণমূলের নাম ভাঙিয়ে অনৈতিক কাজ করেছে , সেটাও এই অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে বেরিয়ে আসবে বলে আশা করছেন তৃণমূলের বর্ষীয়ান কর্মীরা । 

No comments:

Post a Comment

loading...