Friday, 27 September 2019

অবশেষে প্রমাণিত হলো ড: কাফিল খানের বিরুদ্ধে আনা উত্তরপ্রদেশ সরকারের সব অভিযোগ মিথ্যে ছিল

ওয়েব ডেস্ক ২৭শে  সেপ্টেম্বর ২০১৯: অবশেষে কাফিল খান নির্দোষ প্রমাণিত হলেন , দু বছর আগে কর্তব্যের গাফিলতির জন্য যোগী আদিত্যনাথের সরকার তাকে শ্রীঘরে পাঠিয়েছিল আজ সসন্মানে তিনি সমস্ত অভিযোগের থেকে মুক্তি পেলেন ।  উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের বিআরডি হাসপাতলে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে গাফিলতি সহ একাধিক অভিযোগ উঠেছিল। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে শুরু হয়েছিল বিচার বিভাগীয় তদন্ত। সেই তদন্তের রিপোর্টেই জানানো হয়েছে, ড।‌
কাফিল খান নির্দোষ। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগগুলির কোনওরকম সত্যতা যাচাই করা যায়নি, এমনটাই বলা আছে আইএএস অফিসার হিমাংশু কুমারের নেতৃত্বাধীন তদন্তের ১৫ পাতার রিপোর্টে। শিশু মৃত্যুর ঘটনার পর ড।‌ কাফিল খানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, চিকিৎসায় গাফিলতি ও প্রাইভেট প্র‌্যাকটিসের অভিযোগ উঠেছিল। রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, এই অভিযোগগুলি সম্পূর্ণ মিথ্যে। পাশাপাশি তিনিই একমাত্র ব্যক্তি যিনি শিশুদের বাঁচাতে নিজের টাকা খরচ করে অক্সিজেন সিলিন্ডার আনিয়েছিলেন। তিনিই একমাত্র তৎপর ছিলেন গোটা ঘটনায়। অথচ তাঁর বিরুদ্ধেই আঙুল তোলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সংবাদমাধ্যমে কাফিল খান বলেন, ‘‌আমি জানি, আমি কোনও ভুল করিনি। সেই সময় একজন চিকিৎসক হিসাবে আমার যা যা করণীয় থাকতে পারে তাই করেছিলাম। কিন্তু তারপরেও শিশুমৃত্যুর অভিযোগে আমাকে জেলে পাঠানো হয়েছে। এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন উঠছে এই ৮ মাস কাফিল খান যে জেলে রইলেন , তার ভাবমূর্তি যে নষ্ট হল তার ক্ষতিপূরণ যোগী আদিত্যনাথের সরকার দেবে তো ?

No comments:

Post a Comment

loading...