Saturday, 19 October 2019

এক পরিবারের আইনি প্যাচে বেকায়দায় অসমের বিজেপি সরকার

ওয়েব ডেস্ক ১৯ ই অক্টোবর ২০১৯: যাকে খুশি তাকে বিদেশী ঘোষণা করাটা অভ্যেসে দাঁড় করিয়ে ফেলেছিল   এবার তার মূল্য হাড়ে হাড়ে চোকাতে হচ্ছে অসম প্রশাসনকে ।একজন দীর্ঘদিন ধরে ভারতের অসমে বসবাস করছেন , আর তাকেই বাংলাদেশী বলে আখ্যা দিয়ে দিয়েছিল বিজেপি প্রশাসন , আর সেই চিন্তায় তার মৃত্যু ।এবার  মৃতদেহ গ্রহণে আপত্তি জানিয়েছে তার পরিবার। বাংলাদেশি ঘোষণা করা ওই ব্যক্তিকে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দিতে বলছেন পরিবারটির সদস্যরা; আর প্রশাসন তাদের হাতেই বুঝিয়ে দিতে চায় মৃতদেহ।
গত রোববার আসামের গুয়াহাটি মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় শোণিতপুরের আলিসিঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা বছর দুলালচন্দ্র পালের (৬৫)। মৃতদেহটি পরিবার গ্রহণ করবে নাকি সরকারিভাবে সমাহিত করা হবে- নানা জটিলতায় তা নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত আসেনি।শোণিতপুর জেলার তেজপুরে ডিনেটশন ক্যাম্পে থাকা অবস্থায় অসুস্থ হয়ে পড়েন দুলাল। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দুলালের মৃত্যুতে রাস্তা অবরোধ করে ধরনা দেন ১০ হাজারের বেশি মানুষ, তারপরই তদন্তের নির্দেশ দেয় আসাম সরকার।দুলালচন্দ্র পালের ছেলে অশোক পাল বলেন, যদি আমার বাবাকে ভারতের নাগরিক ঘোষণা করা হয় তবেই আমরা তার মৃতদেহ গ্রহণ করব।তিনি বলেন, কোনও বাংলাদেশির মৃতদেহ আমরা গ্রহণ করব না। তিনি আমার বাবা। বাংলাদেশি হিসেবে নাম ঘোষণা করা আমার বাবাকে ভারতের নাগরিক হিসেবে ঘোষণা করতে সরকারকে অনুরোধ করব।দুলালের আরেক ছেলে আশিস বলেন, 'রাজ্য সরকার যেহেতু তাকে বিদেশি বলে ঘোষণা করেছে, ফলে তার দেহ বাংলাদেশের হাতে তুলে দেওয়া উচিত।' 

No comments:

Post a Comment

loading...