Tuesday, 15 October 2019

অভিজিতের নোবেল পাওয়ার খবর চাউর হওয়ার ৪ ঘন্টা পর মোদির অভিনন্দন, উঠছে অনেক প্রশ্ন

ওয়েব ডেস্ক ১৫ই অক্টোবর ২০১৯:অভিজিতের সাফল্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কি তবে সেভাবে আলোড়িত হননি? অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়া ভারতীয় বংশোদ্ভূত এই মানুষটিকে মোদি চার ঘণ্টা পর অভিনন্দন জানান।
অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্ম ভারতের মুম্বাইয়ে। মা-বাবা দুজনই অর্থনীতির স্বনামধন্য অধ্যাপক। তাঁদের কর্মজীবন কেটেছে কলকাতায়ই। কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে স্নাতক করেন অভিজিৎ। নয়াদিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় (জেএনইউ) থেকে করেন স্নাতকোত্তর। পিএইচডি করেন যুক্তরাষ্ট্রের সেরা হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। বর্তমানে বোস্টনের বিখ্যাত ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) অধ্যাপক তিনি। এখন নোবেল জয় করে প্রাপ্তির খাতা পূর্ণ করেছেন তিনি।
দ্বিতীয় বাঙালি হিসেবে নোবেল জয় করে দেশের মানুষের শ্রদ্ধায় এখন ভাসছেন অভিজিৎ। খবরটা কলকাতায় পৌঁছাতেই অভিনন্দনের বন্যা বয়ে গেছে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক টুইটে বলেন, ‘আরও এক বাঙালি দেশের মুখ উজ্জ্বল করলেন।’ রাজ্য সরকারের শুভেচ্ছাবার্তা ও ফুলের তোড়া খুব তাড়াতাড়িই পৌঁছে যায় সদ্য নোবেলজয়ী অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বালিগঞ্জের বাড়িতে। সেখানে এখন তাঁর মা থাকেন। ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই অভিনন্দন জানিয়ে টুইট করেন সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী। তবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অত্যন্ত তৎপর প্রধানমন্ত্রী চুপ ছিলেন বেশ কিছুক্ষণ। এই প্রাপ্তি নিয়ে নির্লিপ্ত ছিল ভারতের শাসক দলের সোশ্যাল মিডিয়া সেল। পরে চার ঘণ্টা পর টুইট করেন নরেন্দ্র মোদি। অভিনন্দনবার্তা দেন। এরপর অভিনন্দন টুইট করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।সরকারের এই নির্লিপ্ততা নিয়ে সংগত কারণেই প্রশ্ন উঠছে রাজনীতির মাঠে। অর্থনীতিতে আরও এক ভারতীয়র নোবেল পাওয়াকে কি খুব বড় বিষয় হিসেবে দেখছে না ভারত সরকার—এমন প্রশ্ন এখন অনেক সরকারি সমালোচকের মুখেই।

No comments:

Post a Comment

loading...