Thursday, 12 December 2019

শুধু মাত্র অ-মুসলিমরাই নাগরিক সংশোধনী বিলের সুবিধে পাবে

ওয়েব ডেস্ক ১২ই ডিসেম্বর ২০১৯:  দীর্ঘদিনের ইচ্ছে অমিত শাহ পূরণ করেছেন । তার দল বিজেপি পূরণ করেছে  । কিন্তু এই নাগরিক সংশোধনী বিল পাশ করানোটা কখনোই সহজ ছিলনা ।বিরোধীদের একের পর এক তীর ধেয়ে আসে এর বিরুদ্ধে । আর আসাটাও ন্যায় সঙ্গত ছিল । কারণ নাগরিক পঞ্জী নিয়ে যেভাবে আসামের মানুষ উৎকণ্ঠায় দিন কাটাচ্ছে তার জন্য দায়ী একমাত্র কেন্দ্রীয় সরকার , ব্যবস্থাপনার প্রচন্ড অভাব । এরই মধ্যে সভা কক্ষে অমিত শাহ প্রশ্ন তোলেন, 'মুসলিমদের কেন নাগরিকত্ব দেয়া হবে' ।এই বিলে কেবল অমুসলিমদের (হিন্দু, শিখ, পার্সি, খ্রিস্টান, জৈন ও বৌদ্ধ) কেন সুবিধা দেয়া হলো, তা নিয়ে শুরু থেকেই প্রশ্ন তুলে আসছেন বিরোধীরা। তাদের অভিযোগ, মুসলিমদের সঙ্গে বিভাজনের রাজনীতি করার উদ্দেশ্যেই বিলটি আনা হয়েছে।
পাল্টা প্রশ্ন করে অমিত শাহ বলেন, গোটা দুনিয়া থেকেই যদি মুসলিমরা এসে এ দেশে নাগরিকত্ব চান, তাদের সবাইকে কি নাগরিকত্ব দিয়ে দেব? কী করে দেব। দেশ কী ভাবে চলবে, এ ভাবে চলতে পারে না।’তার যুক্তি, ‘প্রতিবেশী তিন দেশের রাষ্ট্রধর্ম হল ইসলাম। সেই কারণে শরণার্থী হিসেবে আসা তিন দেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব দেয়া হবে। না হলে উৎপীড়নের শিকার ওই মানুষেরা কোথায় যাবেন।’এই বিলে কেন কেবল অমুসলিমদের (হিন্দু, শিখ, পার্সি, খ্রিস্টান, জৈন ও বৌদ্ধ) কেন সুবিধা দেয়া হলো, তা নিয়ে শুরু থেকেই প্রশ্ন তুলে আসছেন বিরোধীরা। তাদের অভিযোগ, মুসলিমদের সঙ্গে বিভাজনের রাজনীতি করার উদ্দেশ্যেই বিলটি আনা হয়েছে।বিলটি নিয়ে মুসলিম সমাজ আতঙ্কিত বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বহু বিরোধী সংসদ সদস্য। তার উত্তরে অমিত শাহ বলেন মুসলিমদের ভয় পাওয়ার জন্য আমি গৃহমন্ত্রী হয়ে তো কিছুই বলিনি , ভয় পাওয়ার কথা তো কংগ্রেস বলছে । উল্টো চাল ছেলে দেন তিনি । 

No comments:

Post a Comment

loading...