Friday, 13 December 2019

দেশ তোলপাড় সিএবি নিয়ে, অন্য দিকে, মুক্ত হলেন মোদী

ওয়েব ডেস্ক ১৩ই ডিসেম্বর ২০১৯: দেশকে সিএবি নিয়ে তোলপাড় করার উদ্দেশ্য কি তাহলে অন্য ছিল শাসক দলের ? প্রশ্নটা জাগতেই পারে । আর জাগাটাও স্বাভাবিক । কেন না কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করে যখন অমিত শাহ নাগরিক সংশোধনী বিল পাশ করিয়েই ছাড়লেন লোকসভা এবং রাজ্যসভাতে । কিন্তু এরই মধ্যে সবার অলক্ষ্যে ২০০২ সালের গুজরাট দাঙ্গায় তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বেকসুর বলে তদন্ত কমিটির রিপোর্টে ছাড় দেওয়া হল ।যা নিয়ে কোনো কথাই তোলার সুযোগ পাচ্ছেনা বিরোধীরা , সবাই মেতে আছেন নাগরিক সংশোধনী বিল নিয়ে । প্রসঙ্গত,দীর্ঘ ১৭ বছর আগে ২০০২ সালে গুজরাটের গোধরায় হিন্দু তীর্থযাত্রী বা করসেবক বোঝাই একটি ট্রেনের কামরায় আগুন লেগে ৫৯ জনের মৃত্যু হয়। এর বদলা হিসেবে দাঙ্গায় এক হাজার মানুষ খুন হন, বেশিরভাগই মুসলমান। এই ঘটনায় দেশে বিদেশে নিন্দার ঝড় ওঠে। মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মদদে দাঙ্গা হয়েছে বলেও অভিযোগ ওঠে। মোদী বিচারবিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেন।
সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জিটি নানাবতী ও গুজরাট হাইকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি অক্ষয় মেহতাকে নিয়ে গঠিত তদন্ত কমিটি ১২ বছর পরে ২০১৪ সালে গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী আনন্দিবেনের কাছে রিপোর্ট জমা দেয়। ততদিনে মোদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী পদে আসীন। তারও ৫ বছর পরে আজ বুধবার গুজরাট সরকার রাজ্য বিধানসভায় সেই রিপোর্ট পেশ করেছে। রিপোর্টে নরেন্দ্র মোদী ও তাঁর ঘনিষ্ঠ মন্ত্রীদের বেকসুর বলে ছাড় দেওয়া হয়েছে। অভিযোগের আঙুল তোলা হয়েছে তখনকার কয়েক জন পুলিশ অফিসারের প্রতি।এবার চলবে মামলা মোকদ্দমা , সারা জীবন ধরে ।তাই না ?

No comments:

Post a comment

loading...