Monday, 27 January 2020

স্নেহের ভালোবাসা দিতে গিয়ে বিপদে পড়লেন শ্বশুরমশাই , বেঁকে বসলেন কনে

ওয়েব ডেস্ক ২৭ শে  জানুয়ারী  ২০২০ :যত আজগুবি কান্ড সবই বিজেপি শাসিত উত্তর প্রদেশে ।মানুষ এখনো যে কতটা গোড়ামির সাথে জীবন যাপন করে তার প্রমান আবার পাওয়া গেল ।আর যোগী আদিত্য নাথের কি কোনো কিছুই করার নেই এই সব বিষয়ে ? প্রশ্ন উঠছে ।অর্ধেক বিয়ে ইতোমধ্যেই শেষ। কেবল সাত পাকে বাধা বাকি৷ মঞ্চের একপাশে বসে কনে, তারই পাশে বোন৷ শ্বশুরবাড়ির লোকজন এসে নববধূকে আশির্বাদ করে যাচ্ছেন৷ একইভাবে হবু শ্বশুরও সেখানে আসলেন৷ আশির্বাদ করার পরেই হবু পুত্রবধূর কপালে উষ্ণ চুম্বন দিয়ে বসলেন৷ পাশাপাশি তার বোনকেও একটি চুমু দিলেন৷ আর বিপত্তি বাধে সেখানেই।
রাগে বিয়ের আসর থেকে উঠে গেলেন কনে। জানিয়ে দিলেন এ বিয়ে তিনি করবেন না৷ এমনই একটি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের কানপুরের ফাররুখাবাদের ঘটনা৷ সূত্রের খবর অনুসারে নাগলা খাইরবান্দা গ্রামের বাসিন্দা পরমেশ্বরী দয়ালের মেয়ে রুচির সঙ্গে ইতাহের বাসিন্দা বাবুরামের ছেলে রাজেশের বিয়ে ঠিক হয়৷ বিয়ের প্রায় শেষ মুহূর্তে অতিরিক্ত উচ্ছ্বাসে নববধূ রুচি ও তার বোন অনিতাকে চুমু খান বাবুরাম৷ এই কারণে বিয়েতে অস্বীকার করেন রুচি৷ এমনকি বরযাত্রীদেরও ফিরে যেতে বলেন তিনি৷ বাবুরাম তার কাছে ক্ষমতা চাইলেও মন গলেনি তার৷ ঘটনা যায় পুলিশের কানেও৷এ বিষয়ে কনে রুচির ভাই ব্রিজেশ জানিয়েছেন, বিয়ে বাবদ প্রায় ২৭ হাজার টাকা ফেরৎ দেওয়ার আশ্বাস দিলে বরযাত্রীরা ফিরে যেতে রাজি হয়৷   

No comments:

Post a comment

loading...