Saturday, 11 January 2020

মোদী আওয়াজ তুলেছিলেন ডিজিটাল ইন্ডিয়ার,এখন ৫৪% ভারতীয়ই প্রতারণার মুখে

ওয়েব ডেস্ক ১১ই জানুয়ারী  ২০২০ :তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারকে জনতার মাঝে ছড়িয়ে দিতে ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া' গড়ার উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ গত কয়েক বছরে ভারতে মোবাইল সেবার খরচ কমায় অনুকূল পরিবেশও তৈরি হয়েছে৷ এর ফলে বিনোদনের যেমন নয়া মঞ্চ তৈরি হয়েছে, তেমনি ইন্টারনেট ব্যবহার করেবাণিজ্যের সুযোগও বেড়েছে৷ বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইট নানা পণ্যের পসরা নিয়ে হাজির হয়েছে৷ মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনে ক্লিক করলেই ভার্চুয়াল বিপণিতে হাজির হচ্ছেন ক্রেতা৷ পছন্দের সামগ্রী কেনাকাটার পর অনলাইনেই কার্ড বা নেট ব্যাঙ্কিং ব্যবহার করে দাম মিটিয়ে দিচ্ছেন৷ বাড়িতে পৌঁছে যাচ্ছে অর্ডার দেওয়া পণ্যটি৷

বিষয়টি খুব সহজ মনে হলেও এই ডিজিটাল লেনদেনের বিপদও আছে৷ অনলাইনে হাজার হাজার মানুষ প্রতারণার শিকার হচ্ছেন৷ এ কথা স্বীকার করছে খোদ কেন্দ্রীয় সরকারই৷ সম্প্রতি কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ এর আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত অনলাইন শপিং সংক্রান্ত প্রায় ১৪ হাজার প্রতারণার অভিযোগ জমা পড়েছে৷ লোকসভায় একটি প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল জানিয়েছেন, এই ধরনের প্রতারণা দিনে দিনে বাড়ছে৷ ২০১৬ এর আগস্ট থেকে ২০১৭ এর মার্চ পর্যন্ত ৯৭৭ জন প্রতারণার শিকার হয়েছিলেন৷ সেই সংখ্যা এপ্রিল ২০১৭ থেকে মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত বেড়ে হয়েছে দুই হাজার ৪৪১টি৷ তা ক্রমশ বাড়তে বাড়তে গত বছরের এপ্রিল থেকে নভেম্বরে পাঁচ হাজার ৬২০টি প্রতারণার অভিযোগ হয়েছে৷

ডিজিটাল লেনদেনে টাকা খোয়ানো শুধু নয়, অনলাইন শপিং সংস্থাগুলি মানুষকে নানাভাবে ঠকাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে৷ অ্যান্টি ভাইরাস সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ম্যাকাফির সমীক্ষায় সেই তথ্য উঠে এসেছে৷ তাদের দাবি, প্রায় ৫৪ শতাংশ ভারতীয় প্রতারণার মুখে পড়েছেন৷ প্রতারণার সবচেয়ে বড় হাতিয়ার হিসেবে উঠে এসেছে ছাড়ের প্রলোভন৷ চিরাচরিত কেনাকাটার বদলে জনতাকে অনলাইন শপিংয়ে আকৃষ্ট করার জন্য সংস্থাগুলির হাতিয়ার বিপুল ছাড়৷ পণ্যের সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন ব্যাংক ও ক্রেডিট কার্ডে ছাড়ের সুবিধা মেলায় অনেক ক্ষেত্রেই বাজারের থেকে ই-কমার্স ওয়েবসাইটে কম দামে জিনিসপত্র মিলছে৷

No comments:

Post a comment

loading...