Monday, 3 February 2020

নিজের ইচ্ছায় ধর্ষণ , দলের ইচ্ছায় কি জামিন ? প্রশ্ন স্বামী চিন্ময়ানন্দকে নিয়ে

ওয়েব ডেস্ক ৩রা  ফেব্রুয়ারী   ২০২০ :ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া সাবেক মন্ত্রী স্বামী চিন্ময়ানন্দ জামিন পেয়েছেন। ৩ ফেব্রুয়ারি সোমবার তাকে জামিন দেন এলাহাবাদ হাইকোর্ট। অভিযুক্ত বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে এক বছর ধরে এক শিক্ষার্থীকে নিয়মিতভাবে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে।ঘটনার শিকার ওই তরুণী স্বামী চিন্ময়ানন্দের ট্রাস্ট কর্তৃক পরিচালিত একটি আইন কলেজের শিক্ষার্থী। তার অভিযোগের ভিত্তিতে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে গ্রেফতার হন বিজেপি-র এই প্রবীণ নেতা।
বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি তার অবস্থানের সুযোগ নিয়ে ওই তরুণীকে বলপূর্বক যৌন নিপীড়ন করেছেন। ফলে তাকে সরাসরি ধর্ষণের দায়ে নয় বরং ক্ষমতার অপব্যবহার করে শারীরিক সম্পর্কের দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে।চার্জশিটে বল‌া হয়েছে, এক্ষেত্রে শারীরিক সম্পর্ককে ধর্ষণের অপরাধ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। পাশাপাশি চার্জশিটে চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে পিছু নেওয়া, অন্যায়ভাবে আটক করা বা ভয় দেখানোর মতো অভিযোগ আনা হয়েছে।
অভিযোগ আনা তরুণীকেও পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি চিন্ময়ানন্দের কাছ থেকে পাঁচ কোটি টাকা চেয়েছিলেন। গ্রেফতার হওয়ার দুই মাস পর গত ডিসেম্বরে তার জামিন হয়।অভিযুক্ত বিজেপি নেতার দাবি, ওই তরুণী ও তার বন্ধুরা তাকে কয়েকটি ভিডিও ক্লিপ প্রকাশের হুমকি দিয়েছিল। ওই ভিডিওগুলোতে ওই ছাত্রীকে দিয়ে তাকে ম্যাসাজ করানোর মতো দৃশ্য রয়েছে।
গত ২৪ আগস্ট ফেসবুকে কারও নাম না করে তার ওপর নির্যাতানের কথা জানান ওই তরুণী। এরপর থেকে তার আর কোনও খোঁজ মিলছিল না। এর সপ্তাহখানেকের মাথায় তাকে খুঁজে বের করে পুলিশ। সুপ্রিম কোর্ট তার অভিযোগ শুনে তদন্তের নির্দেশ দেয় বিশেষ অনুসন্ধানকারী দলকে। 

No comments:

Post a comment

loading...