Friday, 13 March 2020

ধর্ম জানার জন্য অঙ্কিতকে উলঙ্গ করে সালমান এবং তার সাগরেদরা , চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এলো

ওয়েব ডেস্ক ১৩ই  মার্চ ২০২০ :দিল্লী পুলিশের  স্পেশ্যাল সেল দিল্লী দাঙ্গার সময় আইবি অফিসার অঙ্কিত শর্মার  হত্যার মামলায় সালমান  নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে। সালমান দিল্লীর সুন্দর নগরের বাসিন্দা। পুলিশের দাবি, সালমান শুধু নিজের সাথীদের সাথে মিলে অঙ্কিত শর্মাকে তাহির হুসেইনের বাড়ি পরজন্তে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যায়নি, তাঁরা প্রথমে তাঁকে বিবস্ত্র করে তাঁর গোপনাঙ্গ দেখে তাঁর ধর্মকি সেটা দেখেছিল। পুলিশ আপাতত সালমানের আরও সঙ্গীদের খোঁজ চালাচ্ছে।
পুলিশ সুত্র অনুযায়ী, সালমান জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে যে, সে আর তাঁর সাথিরা মিলে ২৪ আর ২৫ ফেব্রুয়ারি তাহির হুসেইনের বাড়ি গেছিল, আর সেখান থেকেই উপদ্রব চালিয়েছিল। আপাতত পুলিশ এটা জানার চেষ্টা করছে যে, তাহির হুসেইনের বাড়িই কি ওয়ার রুম হিসেবে ব্যবহার করেছিল উপদ্রবিরা?সালমান স্বীকার করেছে যে, ২৩ ফেব্রুয়ারির সকালে সে নিজের সঙ্গীদের সাথে বাজারের ঈদগাহতে যায়। সেখানে জামাতের একটি আয়োজন চলছিল। দুপুরে মৌজপুরে পাথরবাজি হয়। এরপর তাঁদের সবাইকে চাঁদবাগে যাওয়ার জন্য বলা হয়। সালমান স্বীকার করে যে, ২৪ ফেব্রুয়ারি সে চাঁদবাগে ছিল। আর সেখানে সে তাহির হুসেইনের বাড়ি থেকে পেট্রোল বোমা আর পাথরবাজি করে।
সালমান এটাও স্বীকার করে যে, ২৩ তারিক সকালে সদর বাজারের ঈদগাহতে জামাত এর অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য যায় সে। কিন্তু দুপুরে প্রায় দুটো নাগাদ হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে বলা হয় যে, উত্তর পূর্ব দিল্লীতে দাঙ্গা হচ্ছে। আর এরপর তাঁকে চাঁদবাগে যাওয়ার জন্য বলা হয়। এরপর সালমান নিজের সঙ্গীদের নিয়ে বাসে করে খজুরি চৌকে যায় আর অলি-গলি দিয়ে তাহির হুসেইনের বাড়ি পৌঁছায়।

পুলিশ সুত্র অনুযায়ী, সালমান হত্যাকাণ্ড করার পর সেটার তথ্য ফোন করে তাঁর সাথীদের জানায়। দুটি কলের মাধ্যমে পুলিশ সুত্র পায় যে, সালমান ওই দাঙ্গায় যুক্ত আর তাহির হুসেইনের বাড়ি থেকে সে দাঙ্গায় উপদ্রব চালায়। একটি ফোন কল তাঁর ভাইয়ের সাথে ছিল, দ্বিতীয়টি তাঁর বৌদির সাথে ছিল। দুটি ফোন কলেই সে বলে যে, দিল্লীর দাঙ্গাতে সে মানুষ হত্যা করেছে।

No comments:

Post a comment

loading...